স্টাফ রিপোর্টার: দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের বিরম্নদ্ধে রম্নখে দাঁড়াবার আহবান জানিয়েছেন রাজশাহী জেলা ও মহানগর ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির নেতৃবৃন্দ। একই সাথে কেউ আইন হাতে তুলে নিবেন না,এর সাথে জড়িতদের পুলিশের হাতে তুলে দেবেন এবং এই অপপ্রচারের সাথে জড়িতদের দৃষ্টানত্মমূলক শাসিত্মর দাবি জানান তারা। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি আয়োজিত মানববন্ধন চলাকালীন এক সমাবেশে নেতৃবৃন্দ এ দাবি জানান।
মানববন্ধন চলাকালীন সমাবেশে বক্তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের শক্তি যখনই এগিয়ে যাবার চেষ্টা করেছে তখনই সাম্প্রদায়িক স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি অপপ্রচার চালিয়ে জনগণকে বিভ্রানত্ম করার চেষ্টা করেছে।স্বাধীনতার সময় এদেশের মানুষ যখন মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল তখনও তারা এদেশ হিন্দুসত্মান হয়ে যাবে, মসজিদে আযান হবে না,এদেশ ভারতের আশ্রিত রাজ্য হবে,এখানে কেউই গরম্ন জবাই করতে পারবে না, বাড়ি বাড়ি পূজার্চনা হবে কিন’ নামাজ হবে না বলে অপপ্রচার চালিয়েছিল। তারা ২০০১ সালের পর নির্বাচনের সময় এধরনের অপপ্রচার চালিয়ে অগ্নিসংযোগ করে বাড়ি পুড়ানো,মানুষ হত্যা করেছিল। আজো তারা একই ধরনের ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে।
বক্তারা বলেন,এ সরকার যখন পদ্মা সেতু উদ্বোধন করে তখনও তারা বিভিন্ন অপপ্রচার চালিয়েছিল। তারা বলেছিল এসরকার এ সেতু করতে পারবে না। যখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের পড়্গের সরকার এই পদ্মা সেতুকে সমাপ্তির দ্বারপা্রনেত্ম নিয়ে গেছে তখনই ঐ মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী ষড়যন্ত্রকারীরা ছেলে ধরার নামে অপপ্রচার শুরম্ন করেছে। ইতোমধ্যে তাদের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ধরনের দেশদ্রোহীদের বিরম্নদ্ধে কঠোর শাসিত্মর দাবি জানান।
ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা সভাপতি শাহজাহান আলী বরজাহানের সভাতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক ও কলামিষ্ট প্রশানত্ম কুমার সাহা, কবিকুঞ্জের সাধারণ সম্পাদক কবি আরিফুল হক কুমার, মহানগর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির নির্বাহী সভাপতি ড.সুজিত সরকার, জেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যড়্গ রাজকুমার সরকার,সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক দিলিপ কুমার ঘোষ, রাজশাহী থিয়েটারের পড়্গে কামারম্নলস্নাহ সরকার, মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অঞ্জনা সরকার, কবিকুঞ্জের কবি কামরম্নল বাহার, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির মহিলা ইউনিটের আমিনা খাতুন লিমা ও সাংস্কৃতিক কর্মি তামিম সিরাজী প্রমুখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির মহানগর সাধারণ সম্পাদক মনিরম্নজ্জামান উজ্জল।