এফএনএস: সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের অপারেশন পরবর্তী স্বাসে’্যর আশানুরূপ উন্নতি হয়েছে এবং তার স্বাস’্য বর্তমানে সি’তিশীল রয়েছে।
সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে বুধবার দুপুরে ওবায়দুল কাদেরের স্বাস’্য পরীক্ষা শেষে চিকিৎসক দলের প্রধান ডা. ফিলিপ কোহ সনেত্মাষ প্রকাশ করেন। ডা. ফিলিপ কোহ-কে উদ্বৃত করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (উন্নয়ন) ডা. আবু নছর রিজভী হাসপাতাল লবিতে এ তথ্য জানান বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা মো. আবু নাছের। ডা. রিজভী জানান, দুপুরে কাদেরের স্বাস’্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। তার স্বাস’্য সি’তিশীল রয়েছে এবং প্রতিটি প্যারামিটার আশানুরূপ উন্নতি করেছে। স্বাস’্য পরীক্ষার জন্য গত ১৪ জুলাই সিঙ্গাপুর যান ওবায়দুল কাদের।
এর আগে গত ৩ মার্চ ঢাকার নিজ বাসায় শ্বাসকষ্ট শুরম্ন হলে ওবায়দুল কাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের (বিএসএমএমইউ) ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়। এরপর ভারতের বিখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠীর পরামর্শে ৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ২০ মার্চ ওবায়দুল কাদেরের সফল বাইপাস সার্জারি সম্পন্ন হয়। ৫ এপ্রিল মাউন্ট এলিজাবেথ থেকে ছাড়পত্র পান কাদের। তবে ওই হাসপাতালের কাছেই ভাড়া বাসায় আরো কয়েক দিন থেকে যান কাদের। সিঙ্গাপুরে দুই মাস ১০ দিন চিকিৎসা শেষে গত ১৫ মে দেশে ফেরেন তিনি।
সিঙ্গাপুরে স্বাস’্য পরীক্ষার সময় অন্যান্যের মধ্যে ওবায়দুল কাদেরের স্ত্রী ইসরাতুন্নেছা কাদের, সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোসত্মাফিজুর রহমান, সংসদ সদস্য নিজাম হাজারী, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, দূতাবাস কর্মকর্তা গাজী আল আমিন উপসি’ত ছিলেন। বুধবার রাতে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে ওবায়দুল কাদেরের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।