সোনালী ডেস্ক: রাষ্ট্রপতি এম আব্দুল হামিদ সর্বসত্মরের চেইন অব কমান্ড মেনে বাহিনীর ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখতে এবং যথাযথ দায়িত্ব পালনে রাষ্ট্রপতির রেজিমেন্টের (পিজিআর)-এর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি পিজিআর সদস্যদের উদ্দেশ্যে করে বলেন, বাহিনীর অর্জিত গৌরব সমুন্নত রাখতে আপনাদের চেইন অব কমাণ্ড অনুসরণ করে চলতে হবে। গতকাল মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি গার্ড রেজিমেন্টের ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা সেনানিবাসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, আমি মনে করি, আপনারা ভিভিআইপিদের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় কর্মসূচীতে যোগ দিয়ে দেশের মর্যাদা সমুন্নত রাখতে খুবই আনত্মরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন অব্যাহত রাখবেন। তিনি বলেন, পিজিআর-এর দায়িত্বের ক্ষেত্র দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং রেজিমেন্টর কাঠামোও বর্তমানে বেড়েছে। আগামী দিনগুলোতে এই বাহিনীর সুনাম বজায় রাখতে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। তিনি পিজিআরকে দেশের গর্বিত সেনাবাহিনীর একটি বিশেষায়িত অংশ উলেস্ন করে বলেন, সেনাবাহিনীর কঠোর পরিশ্রম দেশে-বিদেশে তাদের ভাবমূর্তি উজ্জল করেছে। বৈরি আবহাওয়ায় রাত ও দিনে আপনাদের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে আনত্মরিকতা খুবই প্রশংসনীয়। রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে বিশেষ করে পদ্মা বহুমুখী সেতুর নির্মাণে কাজ তত্ত্ববধানে সেনাবাহিনীর অংশ গ্রহণের প্রশংসা করেন। রাষ্ট্রপতি তাঁর ভাষণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেক মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, সর্বকালে সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমন ১৯৭৫ সালের ৫ জুলাই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চৌকস কর্মকর্তা ও সেনা সদস্যদের নিয়োগ দেয়ার মাধ্যমে পিজিআর গঠন করেন। আমার বিশ্বাস আপনারা আগামীতেও দায়িত্ববোধ ও নিষ্ঠার সাথে এভাবেই পালন অব্যাহত রাখবেন।
এরআগে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ পিজিআর সদর দপ্তরে এসে পৌঁছলে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এবং পিজিআর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জাহাঙ্গির হারম্নন তাঁকে অভ্যর্থনা জানান। এ সময় একটি সুসজ্জিত দল তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করেন। সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রধান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অনুষ্ঠানে কেক কাটেন।
অনুষ্ঠানে বঙ্গভবনের সংশিস্নষ্ট সচিবগণ, পদস’ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তাগণ উপসি’ত ছিলেন।