বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিৰার্থীর ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল করে দেওয়ার ভয় ভীতি দেখিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার থেকে তাকে বিভিন্ন সময় আটকে রেখে বিশ হাজার টাকা দাবি করা হয়। তবে বিষয়টি জানাজানি হয় রোববার রাতে।
ভুক্তভোগী শিৰার্থীর নাম নাসির উদ্দিন। তিনি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রথম বর্ষের শিৰার্থী। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন মেহেরচ-ীতে ভাড়া বাসায় থাকতেন। অপরদিকে অভিযুক্ত ওই যুবকের নাম আসলাম সরকার রাজু। তিনি রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ২৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক।
নাসির উদ্দিনের অভিযোগ, গত শুক্রবার বিকেলে ক্যাম্পাসে জন্মদিন পালন করেন নাসির উদ্দিন। তিনি তার এক বান্ধবীকে জন্মদিনে আমন্ত্রণ জানান কিন’ তার বান্ধবী জন্মদিনে আসতে না পারায় সন্ধ্যায় তার বাসার সামনে উপহার দিতে আসেন। সে সময় রাজুসহ কয়েকজন নাসির ও তার বান্ধবীকে জোরপূর্বক র্বমে নিয়ে তাদের ছবি তোলেন এবং তার টাকা ও ফোন ছিনিয়ে নেয়।
নাসির আরও অভিযোগ করেন, তাদের দুজনের তোলা ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বিশ হাজার টাকা দাবি করেন। টাকা দেওয়ার জন্য আজ মঙ্গলবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত সময় দেয় রাজু। রাজু রোববার রাতে নাসিরকে আবার ডেকে নিয়ে প্রায় এক ঘণ্টা আটকে রাখে এবং দশ হাজার টাকা দাবি করে। নাসির টাকা দিতে রাজি হলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর রাতেই তিনি বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে দেন।
অভিযোগের বিষয়ে রাজুকে ফোন করা হলে তার বাড়ি মৌলভীবাজার বলে কেটে দেন এরপর থেকে তার ফোন নম্বরটি বন্ধ রয়েছে। তবে কল করা সে নম্বরটি আসলাম সরকার রাজুর বলে নিশ্চিত করেন ২৬ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের একাধিক নেতারা।
রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি রকি কুমার ঘোষ বলেন, ‘রাজু ২৬ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিল। তার বির্বদ্ধে চাঁদাবাজি এবং সংগঠনের শৃঙ্খলা বর্হিভূত নানা কাজের প্রমাণ পাওয়ায় দেড় বছর আগে ছাত্রলীগ থেকে স’ায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। এখন ছাত্রলীগের সাথে তার কোনো সম্পর্ক নেই।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘নাসির আমার কাছে নিরাপত্তা চেয়ে এবং তার বিষয়টি লিখিতভাবে জানিয়েছে। আমি পুলিশ প্রশাসনকে বিষয়টি জানিয়েছি। আগামীকাল (আজ) সকালে তাকে ওই এলাকার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনারের সাথে দেখা করতে বলেছি। কমিশনারের সাথে আমার কথা হয়েছে উনি ব্যবস’া নেবেন।