১৫ দিনের জন্য দেশ লকডাউন করার দাবি ওয়ার্কার্স পার্টির

সোনালী ডেস্ক: চিকিৎসা এবং গরিব মানুষের খাদ্য নিরাপত্তাসহ পরিপূর্ণ উদ্যোগ নিয়ে করোনা মহামারী রোধে এখনই ১৫ দিনের জন্য দেশকে লকডাউন করা হোক এমন দাবি করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি। গতকাল শনিবার দুপুরে ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর পক্ষ থেকে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে সরকারের কাছে এ দাবি করা হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাস আতঙ্ক সৃষ্টি ও ব্যবহার করে বাংলাদেশে অসাধু ব্যবসায়ীদের চক্র ইতোমধ্যে নিয়ন্ত্রণহীন মুনাফায় লিপ্ত হয়েছে। দিন আনা দিন খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ ইতোমধ্যেই কর্ম হারিয়েছেন। সরকার গোঁজামিল দিয়ে, ‘দেখি কি করা যায়’ এই নীতি নিয়ে পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে পারবে না। এভাবে চললে সবকিছুই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। করোনাভাইরাসের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ পলিটব্যুরোর সদস্যরা বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে সরকার সম্বন্বিত সংকট মোকাবিলা করার সক্ষমতা প্রদর্শন করতে পারছেনা। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও তার মন্ত্রীদের অতিকথন পরিস্থিতিকে আরও ঘোলাটে করছে। বাস্তবতার সঙ্গে তাদের কথা ও কাজ মিলেছে না। করোনা নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় উপকরণ স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রদান করা হয়নি, এমনকি নূন্যতম যে প্রশিক্ষণ লাগে সে ব্যবস্থাপনাও গড়ে তোলা যাচ্ছে না। চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রস্তুতির অভাবে নিজেরাই আতঙ্ক এবং মানসিক পীড়ায় আছেন। ওয়ার্কার্স পার্টি পলিট ব্যুরো সুনিদিষ্টভাবেই মনে করে, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া যেভাবে করোনা সংকট মোকাবিলা করেছে সেই পথে অত্যন্ত বলিষ্টতার সংগে সারাদেশ ১৫ দিনের জন্য লকডাউন করে জনগণের খাদ্য, চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার ব্যবস্থা ও শ্রমজীবী দরিদ্র মানুষের প্রতিদিনের খাদ্য চাহিদার পরিপূরণের ব্যবস্থা করবে। জনগণ করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকারের বলিষ্ঠ ভ‚মিকা কামনা করছে।
এছাড়াও জনগণের প্রতি ওয়ার্কার্স পার্টি আহŸান জানিয়ে বলেন, মহামারী পরিস্থিতি সৃষ্টির আগেই সব অঞ্চলে করোনা নিয়ন্ত্রণের যেসব নির্দেশাবলী ইতোমধ্যে ঘোষিত হয়েছে তা নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করতে হবে। নিজেদের সংক্রমণ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে।

শর্টলিংকঃ