হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি, সেখানেও হামলা

  • 1
    Share

অনলাইন ডেস্ক: বরিশালের মুলাদী উপজেলা হাসপাতালে লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে ৩ রোগীর উপর হামলা চালানো হয়েছে। বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার হামলার ঘটনা ঘটেছে।

আহতরা হলেন উপজেলার সদর ইউনিয়নের খালাসীরচর গ্রামের সেকান্দার বেপারীর ছেলে এমদাদুল বেপারী, ভাই ইউনুস বেপারী ও স্বজন মোকলেস বেপারীর স্ত্রী শিফা বেগম।

আহতরা জানান, জমি নিয়ে তাদের দীর্ঘদিন ধরে একই এলাকার আলতাফ বেপারীর সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠক হয়। সর্বশেষ বুধবার বৈঠক শেষে সীমানা পিলার স্থাপনের সময় আলতাফ বেপারী ও তার ছেলে রাকিব বেপারীর নেতৃত্বে তাদের সহযোগীরা লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে এমদাদুল বেপারী, ভাই ইউনুস বেপারী ও স্বজন মোকলেস বেপারীর স্ত্রী শিফা বেগম আহত হন।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে পুনরায় রাকিব বেপারী ও তার লোকজন রামদা ও লাঠিসোটা নিয়ে তাদের উপর হামলা করে। এসময় তাদের ধারালো দায়ের আঘাতে ছেলে এমদাদুলের হাতের রগ কেটে যায়। তাদের লাঠির আঘাতে তিনি ও শিফা বেগম আহত হন

মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাইয়েতুর রহমান জানান, লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে রোগীর প্রতিপক্ষরা হামলা চালালে চিকিৎসক ও সেবিকারা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। পুলিশ আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যান।

মুলাদী থানার ওসি এসএম মাকসুদুর রহমান জানান, পুলিশ যাওয়ার আগে হামলাকরীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় আহতদের লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোনালী/জেআর

শর্টলিংকঃ