হাত ধুইয়ে থানায় ঢোকাচ্ছেন ওসি

স্টাফ রিপোর্টার: থানায় নিজের কৰ ছেড়ে প্রধান ফটকের পাশে চেয়ার-টেবিল পেতে বসছেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)। কেউ পুলিশি সেবা নিতে থানায় গেলে ওসি উঠে দাঁড়াচ্ছেন। হ্যান্ড স্যানিটাইজার স্প্রে করছেন। আর আগত ব্যক্তি হাত ধুচ্ছেন। তারপর থানার প্রধান ফটকের পাশে বসেই আগত ব্যক্তিকে আইনি সেবা দিচ্ছেন ওসি। গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় এমন চিত্র দেখা যায়।
ওসি নিবারন চন্দ্র বর্মন বললেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী থানার প্রধান ফটকে হাত ধোয়ার ব্যবস’া করেছি। হ্যান্ডস্যানিটাইজারের পাশে একজন পুলিশ সদস্য দায়িত্বে থাকেন। দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য কোথাও গেলে আমি নিজেই স্যানিটাইজার স্প্রে করে দেই। তারপর বসেন।
ওসি বলেন, করোনাভাইরাস থেকে রৰা পাবার প্রধান উপায় বার বার হাত ধোয়া, পরিস্কারর থাকা। কিন’ অপরিস্কার হাত দিয়ে স্যানিটাইজারের বোতল ধরলে সেটাও জীবাণুযুক্ত হতে পারে। তাই পরিস্কার হাতেই স্যানিটাইজার ধরতে হয়। কিন’ যিনি বাইরে থেকে আসেন তার হাত পরিস্কার না-ও থাকতে পারে। সে জন্য স্যানিটাইজার স্প্রে করে দেয়া হয়, যেন বোতলটা কোনোভাবে জীবাণুযুক্ত না হয়।
থানায় এসেছিলেন সাগরপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী আনিসুর রহমান। তিনি বলেন, থানার অনেক ওসি কথায় শুনতে চান না। কিন’ এখানে এসে দেখলেন, ওসি নিজেই তাকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার স্প্রে করে দিচ্ছেন। আন্তরিকতার সঙ্গে আইনি সেবাও দিলেন ওসি। থানায় এ রকম সেবা তিনি প্রথমবার পেলেন।

শর্টলিংকঃ