হাজতে স্বামীকে খাবারের সাথে ইয়াবা দিতে গিয়ে স্ত্রী শ্রীঘরে

  • 6
    Shares

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুর পুলিশ কোর্টের হাজত খানায় স্বামীকে শুকনা খাবারের সঙ্গে ইয়াবা দিতে গিয়ে ১৬ পিস ইয়াবাসহ এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দিনাজপুর পুলিশ কোর্টের হাজতখানায় এই ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তার নারীর নাম রুজিনা বেগম রিক্তা (২৫)। তার স্বামীর নাম মিলন রহমান (২৭)। তিনি পার্বতীপুর উপজেলার সাহেবপাড়া মহল্লার বাসিন্দা। মিলন একটি চুরি মামলার আসামি।

দিনাজপুর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ইমাম জাফর জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে দিনাজপুর পুলিশ কোর্টে একটি চুরি মামলার আসামি মিলনকে হাজতখানায় নিয়ে আসা হয়। এ সময় তার স্ত্রী রুজিনা বেগম রিক্তা শুকনা খাবার দেয়ার জন্য পুলিশের কাছে যান।

হাজতখানায় ডিউটিতে থাকা পুলিশ সদস্য ওই শুকনা খাবার নিতে না চাইলে রুজিনা কোর্ট পুলিশ পরিদর্শক শফিকুল ইসলামের কাছে যান এবং তার স্বামীকে খাবার দেয়ার জন্য অনুরোধ জানান।

এ সময় খাবার চেক করতে গিয়ে চিড়ার মধ্যে ১৬ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়। এই ঘটনায় রুজিনাকে ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা করেছেন। রুজিনা বেগমকে বৃহস্পতিবার দুপুরেই সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসলমাইল হোসেনের আদালতে হাজির করা হয়।

ডিবি পুলিশের সূত্র জানায়, রুজিনা বিচারকের কাছে স্বীকারোক্তিতে বলেছেন, তার স্বামী মিলন দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত। মাদক সেবন না করলে তিনি শারীরিকভাবে অস্থির হয়ে যান এবং শরীরে নানা ধরনের উপসর্গ দেখা দেয়। স্বামীর সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার পুলিশ কোর্টে হাজতখানায় দেখা করলে তিনি যে ভাবেই হোক ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে দিতে বলেন। এ জন্য তিনি ইয়াবা সংগ্রহ করে শুকনো খাবারের সঙ্গে দেয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন। রুজিনা বেগমের জবানবন্দি গ্রহণ করে বৃহস্পতিবার বিকালে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিজ্ঞ বিচারক।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ