সুষ্ঠু যোগাযোগ ও ঋণপ্রাপ্তি সমস্যা রাজশাহীর শিল্প বিকাশে বড় বাধা

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী নগরীর কালেক্টরেট মাঠে এসএমই ফাউন্ডেশন আয়োজিত পণ্য মেলায় ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে স্থানীয় পণ্যের প্রভাব-সমস্যা ও সমাধান বিষয়ক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল শনিবার বিকেলে রাজশাহী কালেক্টরেট মাঠে সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা প্রশসাক (রাজস্ব) এবং আয়োজক কমিটির আহবায়ক নজরুল ইসলাম।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবার রহমান। এতে মূল আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রেশম শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি ও দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদক মো: লিয়াকত আলী।
মূল আলোচক মো: লিয়াকত আলী বলেন, স্বল্পসুদে ঋণের সমস্যা, পশ্চাৎপদ যোগাযোগ এবং প্রয়োজনীয় জ্বালানির অভাবই এ অঞ্চলে শিল্প বিকাশে বড় অন্তরায়। ব্যাংকে সহজ শর্তে ঋণের সমস্যা, পর্যাপ্ত কারিগরি শিক্ষার অভাবে শিল্পবিকাশকে বাধাগ্রস্ত করছে। শিল্প বিকাশের স্বার্থে কারিগরি শিক্ষার পর্যাপ্ত সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। তিনি আরও বলেন, রেশম শিল্প হচ্ছে রাজশাহীর একটা সম্ভাবনাময় শিল্প। পরিকল্পিত উৎপাদন এবং রেশম শিল্প গড়ে তোলার আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন রাজশাহীর রেশমের সুনাম বিশ্বজুড়ে। তা সত্তে¡ও সুষ্ঠু পরিকল্পনার অভাবে রাজশাহীতে রেশম শিল্প লাভজনক হয়ে উঠছে না। ইতোমধ্যে চীন এবং ভারত হাইব্রিড ব্যবহার করে স্বল্পখরচে রেশম উপাদন ও বিপনন করতে সক্ষম হয়েছে। এর ফলে বিশ্বে রেশম উৎপাদনে চীন প্রথম এবং ভারত দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। আগামীতে পরিকল্পিত রেশম উৎপাদন করতে পারলে বাংলাদেশও হতে পারে রেশম উৎপাদনের দিক থেকে বিশ্বের তৃতীয়। তিনি আরও বলেন, রাজশাহীতে দ্বিতীয় শিল্পনগরী হচ্ছে। এখানে যতি ৭-৮% হারে সুদের ব্যবস্থা হলেই রাজশাহীতে শিল্পের বিকাশ ঘটতে পারে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিসিকের আঞ্চলিক পরিচালক তামান্না রহমান। তিনি বলেন, রাজশাহীতে নিত্য নতুন শিল্প হচ্ছে। এখানে ৫০ একর জমির উপর দ্বিতীয় শিল্পনগরী হচ্ছে। ১১৪.৫২ একরের উপর হচ্ছে চামড়া শিল্প। রাজশাহী শিল্পনগরীতে নিত্যনতুন শিল্প হচ্ছে। এখন প্রতি নিয়তই রাজশাহীতে শিল্প গড়ে উড়ছে।
ড. মাহবুবার রহমান তার লিখিত কী-নোট পেপারে ক্ষুদ্র শিল্প, মাঝারি শিল্পের ধরণ, স্থায়ী সম্পদের পরিমাণ, কর্মিসংখ্যা, সেবা খাত, ব্যবসা খাত ও উৎপাদন খাত বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। একই সাথে বাংলাদেশসহ এ অঞ্চলের বিভিন্ন দেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধির তুলনামূলক পর্যালোনা করেন।
এতে আরও বক্তব্য রাখেন রাজশাহী কলেজের শিক্ষক সুশান্ত রায় চৌধুরীসহ অন্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

শর্টলিংকঃ