সম্মেলন করতে না পারায় রাজশাহী জেলা বিএনপির আহŸায়ক কমিটিকে শোকজ

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী জেলা বিএনপির ৪১ সদস্যবিশিষ্ট আহŸায়ক কমিটি করে দেয়া হয় কেন্দ্র থেকে। ২০১৯ সালের জুলাইয়ে দেয়া এই কমিটিকে তিন মাসের মধ্যে সম্মেলন করে নতুন কমিটি গঠনের নির্দেশও দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আট মাস পার হলেও সম্মেলনের কোনো উদ্যোগ নেই। এ অবস্থায় চটেছে দলটির কেন্দ্র। সাতদিনের মধ্যে জবাব দিতে না পারলে আহŸায়ক কমিটিও ভেঙে দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে কড়া চিঠি পাঠিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
গত ৫ মার্চ রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়, গত ৪ জুলাই ২০১৯ তারিখে রাজশাহী জেলা বিএনপি র আহবায়ক কমিটি তিন মাস মেয়াদে কাউন্সিলের মাধ্যমে জেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের শর্তে অনুমােদন করা হয়। কিন্তু আট মাস এক দিন সময় অতিবাহিত হলেও কেন্দ্রীয় নির্দেশ মােতাবেক সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে পারেননি। এই প্রেক্ষিতে কেন আপনাদের জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত করা হবে না তার কারণ দর্শিয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে একটি লিখিত জবাব ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বরাবরে দলের নয়াপল্টনস্থ কেন্দ্রীয় দফতরে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করছি। বষয়টি অতীব জরুরী।
এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহŸায়ক আবু সাঈদ চাঁদ বলেন, সারাদেশের মধ্যে এই প্রথম আমরা রাজশাহীর সকল ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটি করেছি কাউন্সিলের মাধ্যমে। ১৪ উপজেলা ও পৌর কমিটির মধ্যে ৯টির কাউন্সিল হয়েছে। কাউন্সিল করতে গেলেই প্রশাসনের বাধার মুখে পড়ছি। বাঘায় কাউন্সিল করায় আমার নামে মামলাও হয়েছে। এসব কারণেই জেলার কাউন্সিলও হয়নি। তবে কয়েকদিনের মধ্যে জেলা বিএনপি কাউন্সিল হবে বলেও জানান তিনি।
এর আগে ২০১৯ সালের ৪ জুলাই রাজশাহী জেলা বিএনপির কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন আহŸায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এ কমিটির আহŸায়ক করা হয় বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও চারঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবু সাঈদ চাঁদকে। ৪১ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটির যুগ্ম আহŸায়ক কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য সাইফুল ইসলাম মার্শাল ও সদস্য সচিব আগের কমিটি সহ-সভাপতি বিশ্বনাথ সরকারকে।
এর আগে ২০১৬ সালের ২৬ ডিসেম্বর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আগের সাত বছরের পুরান কমিটি ভেঙে দিয়ে তোফাজ্জল হোসেন তপুকে সভাপতি ও মতিউর রহমান মন্টুকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেছিলেন। নতুন এ কমিটির বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন দলের নেতাকর্মীরা। চলে গণপদত্যাগের হিড়িক। কমিটি ঘোষণার পরদিনই রাজশাহী জেলা ও মহানগর কার্যালয়ে তালা মারেন নেতাকর্মীদের একাংশ। রাজশাহীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশও করেন নেতাকর্মীরা। ওই সময় অভিযোগ উঠে বিএনপি নেতা রিজভী যোগ্যতা বিচার না করেই শুধুমাত্র নিজের লোক বিবেচনায় কমিটিতে পদ দিয়েছেন।

শর্টলিংকঃ