শুদ্ধি অভিযান: কক্সবাজার পুলিশের ১১৪১ পুলিশ সদস্য বদলি

অনলাইন ডেস্ক:

কক্সবাজারে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নিহত হওয়ার ঘটনায় ইমেজ সংকটে পড়া পুলিশবাহিনী ঢেলে সাজাতে ব্যাপক রদবদল শুরু হয়েছে। কক্সবাজার জেলা পুলিশে ১ হাজার ১৪১ পুলিশ সদস্যকে একযোগে বদলি করা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) এই জেলা পুলিশে কর্মরত ছয় থানার ওসিসহ ৩৪ পরিদর্শককে বদলি করা হয়। যে কোনো জেলা পুলিশে কর্মরত পরিদর্শকের সবাইকে একযোগে বদলি করার ঘটনা এটিই প্রথম।

পুলিশ সদর দফতরের প্রজ্ঞাপনে বদলির এই আদেশকে ‘জনস্বার্থে’ বলা হলেও পুলিশ সূত্র বলছে, সিনহা হত্যাকাণ্ডের পর পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জে শুদ্ধি অভিযানের সিদ্ধান্ত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি, কক্সবাজারের এসপি, এডিশনাল এসপি, এএসপির পর এবার ৩৪ পরিদর্শককে বদলি করা হলো।

জানতে চাইলে পুলিশের চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক (ডিআইজি) মো. আনোয়ার হোসেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘কক্সবাজার অঞ্চলের সব পুলিশ সদস্যকেই বদলি করা হচ্ছে। এটি নিয়মিত বদলিরই অংশ।’

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সদর দফতরের এক প্রজ্ঞাপনে জেলা পুলিশের ১১৪১ জন কনস্টেবলকে বদলি করা হয়েছে।

এদিকে, কক্সবাজার জেলা দিয়ে বিশেষ ‘শুদ্ধি অভিযান’ শুরু করেছেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। এরই অংশ হিসেবে তিনি কক্সবাজার জেলায় কর্মরত সব পুলিশ সদস্যকে এ জেলার বাইরে এবং তাদের স্থলে অন্য জেলার পুলিশ সদস্যদের পদায়নের সিদ্ধান্ত নেন।

কীভাবে সততা ও স্বচ্ছলতার সঙ্গে নিজের ওপর অর্পিত দায়িত্বপালন করতে হবে এ ব্যাপারে আইজিপি তাদের দিক নির্দেশনা দেন। তাদের মরণনেশা ইয়াবার বিরুদ্ধে জোরাল ভূমিকা পালন করতেও নির্দেশ দেন আইজিপি। ইয়াবা বিকিকিনির সঙ্গে কোনো পুলিশ সদস্য জড়িয়ে পড়লে তার পরিণতি কী হতে পারে এ বার্তাও দিয়েছেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। -বার্তা২৪.কম

সোনালী সংবাদ/এইচ.এ

শর্টলিংকঃ