শীতকালে হাত-পায়ের শুষ্কতা এড়াতে করণীয়

অনলাইন ডেস্ক: শীতের আগমনী বার্তা টের পাওয়া যাচ্ছে। শীতের ঠান্ডা বাতাস ত্বককে শুকিয়ে অস্বস্তিকর পরিস্থিতির সম্মুখীন করে। এসময় হাত-পায়ে নিয়মিত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে ত্বকের শুষ্কতা প্রতিরোধ হবে। ফলে ত্বক ফাটবে না ও সুরক্ষিত থাকবে। কিছু ঘরোয়া উপায়েও ত্বককে আর্দ্র রাখা যায় ও কোমল করা যায়। এখানে শীতকালে হাত-পায়ে ত্বকের শুষ্কতা ও ফাটা প্রতিরোধে কিছু কার্যকর ঘরোয়া উপায় দেয়া হলো।

মোজা পরে ঘুমানো: ফাটা পায়ের প্রতিকারে মোজা পরে ঘুমাতে পারেন। ত্বক বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হলো, প্রথমে কুসুম গরম পানিতে পা দুটিকে দশ মিনিট ডুবিয়ে রাখতে হবে। এরপর সিরেভের মতো ঘন ক্রিম অথবা ভ্যাসলিনের মতো পেট্রোলিয়াম জেলি পায়ের পাতায় লাগিয়ে মোজা পরে নিন। এসব ক্রিম বা অয়েন্টমেন্টের আর্দ্রকারক উপাদান সারারাত ধরে ত্বকে প্রবেশ করে পায়ের পাতাকে নরম করবে ও ত্বকের ফাটা নিরাময় হবে।

* দইয়ের মাস্ক: ক্রিম/অয়েন্টমেন্টের বিকল্প হিসেবে অথবা দিনের অন্যসময় শুষ্ক পা ও হাতে ফুল-ফ্যাট দইয়ের প্রলেপ দিতে পারেন। দইয়ের ল্যাকটিক এসিড প্রাকৃতিক এক্সফোলিয়েন্ট হিসেবে কাজ করে, যা ত্বকের মৃতকোষ অপসারণ করে। অন্যদিকে দইয়ের ফ্যাট আর্দ্রতা পুনরুদ্ধার করে। এই মাস্কের কার্যকারিতা বাড়াতে দইয়ে এক চা-চামচ মধু মেশাতে পারেন। এই মিশ্রণ ত্বকে লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। দইয়ের মাস্ক ত্বককে খুবই আর্দ্র করে।

* ঘরে তৈরি ক্রিমের ব্যবহার: ১ আউন্স মৌ-মোম, ১/৩ কাপ ভার্জিন অলিভ অয়েল, ২ টেবিল চামচ পানি বা গোলাপজল ও ৫-১০ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল দিয়ে ঘরে ক্রিম তৈরি করে হাত ও পায়ে ব্যবহার করতে পারেন। এই ক্রিম ত্বককে কোমল করবে এটা নিশ্চিত। মৌ-মোমকে (বিসওয়াক্স) গলিয়ে নিন। ভার্জিন অলিভ অয়েলকে একটি সসপ্যানে অল্প গরম করে গলিত বিসওয়াক্সে ঢেলে দিন। তারপর পানি বা গোলাপজলকে গরম করে ফোঁটায় ফোঁটায় তেল-মোমের মিশ্রণে ঢেলে নাড়তে থাকুন। চুলা বন্ধ করে মিশ্রণটি ঠান্ডা ও ঘন না হওয়া পর্যন্ত নাড়তে থাকুন। এরপর ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণকে ক্রিমের কৌটায় ভরে ঠান্ডা স্থানে সংরক্ষণ করুন। এটাকে তিন মাস পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারবেন।

* ভিটামিন বি৩ সমৃদ্ধ প্রসাধনী সামগ্রীর ব্যবহার: ত্বক বিশেষজ্ঞদের মতে, নিয়াচিনামাইড নামেও পরিচিত ভিটামিন বি৩ ত্বককে প্রশান্তি দিতে পারে ও উজ্জ্বল করতে পারে। এছাড়া এটি ত্বকের বেষ্টনিকে শক্তিশালী করে। ত্বকের বেষ্টনির কার্যক্রম যত উন্নত হবে, তত বেশি ত্বককে আর্দ্র রাখতে পারবে। তাই হাত-পায়ে ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে ও ত্বককে কোমল রাখতে ভিটামিন বি৩ সমৃদ্ধ প্রসাধনী সামগ্রী ব্যবহার করুন।

সোনালী সংবাদ/এসএসকে

শর্টলিংকঃ