শিলাকচ্ছপ সংরৰণ বিষয়ক সেমিনার

স্টাফ রিপোর্টার: এশিয়ার সর্ববৃহৎ কচ্ছপ খ্যাত শিলাকচ্ছপ সংরৰণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের উদ্যোগে ‘এশিয়ার সর্ববৃহৎ কচ্ছপ সংরৰণে সামাজিক উদ্যোগ’ শীর্ষক সেমিনার আয়োজন করা হয়। গতকাল রোববার বিকেল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মুহম্মদ কুদরত-এ-খুদা একাডেমিক ভবনে অনুষ্ঠিত হয় সেমিনারটি।
সেমিনারে প্রবন্ধ উপস’াপন করেন ক্রিয়েটিভ কনসার্ভেশন অ্যালায়েন্স এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং আইইউসিএন-এসএসসি কচ্ছপ ও স্বাদু পানির কাছিম গবেষক (বাংলাদেশ) দলের ভাইস-চেয়ার শাহরিয়ার সিজার রহমান। তার উপস’াপনায় তিনি মহাবিপণ্ন্ন এশিয়ান শিলাকচ্ছপ সংরৰণে সামাজিক উদ্যোগের ভূমিকা তুলে ধরেন। এছাড়াও তিনি বিলুপ্ত প্রজাতির কচ্ছপ সংরৰণে গাজীপুরের ভাওয়ালে অবসি’ত তাদের কচ্ছপ সংরৰণাগারের ভূমিকা ও সফলতা তুলে ধরেন। এছাড়াও এসময় গবেষণা সহযোগিতা নিয়ে প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগ ও ক্রিয়েটিভ কনসার্ভেশন অ্যালায়েন্সের মাঝে সমঝোতা চুক্তি স্বাৰরিত হয়।
এসময় সেমিনারে উপসি’ত ছিলেন, প্রাণ রসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. তানজিমা ইয়াসমিন, অধ্যাপক ড. হাবিবুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক ড. শাহরিয়ার শোভন, ক্রিয়েটিভ কনসার্ভেশন অ্যালায়েন্স এর ফ্যাসিলিটি ম্যানেজার ফাহিম উজ্জামান, শিৰার্থী-গবেষক আব্দুলৱাহ হিল কাফি প্রমুখ। এর আগে গেছো শামুকের অস্তিত্ব রৰা ও বংশবিস্তার বিষয়ে গবেষণা কাজের জন্য রাবির প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শাহরিয়ার শোভন ও ক্রিয়েটিভ কনজারভেশন অ্যালায়েন্স এর সিইও শাহরিয়ার সিজার রহমান এর মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
রাবির প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগে রবিবার বেলা ১১টায় এই চুক্তি স্বাৰর হয়। গেছো শামুকের অস্তিত্ব রৰা ও বংশবিস্তার বিষয়ে গবেষণার জন্য সার্ভেসহ সকল প্রকারের লজিস্টিক সহযোগিতার জন্য উভয় পৰের মধ্যে এই চুক্তি স্বাৰর হয়। চুক্তি স্বাৰর অনুষ্ঠানে আরও উপসি’ত ছিলেন, বিভাগটির গবেষক শিক্ষার্থী আবদুলৱাহ হিল কাফী ও ক্রিয়েটিভ কনজারভেশন অ্যালায়েন্স এর ফ্যাসিলিটি ম্যানেজার ফাহিম উজ্জামান।

শর্টলিংকঃ