লঞ্চের কেবিনে নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা

  • 6
    Shares

অনলাইন ডেস্ক: বরিশাল-ঢাকা রুটের এমভি পারাবত-১১ লঞ্চ থেকে মধ্যবয়সী অজ্ঞাতপরিচয় এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সকালে বরিশাল নদীবন্দরে নোঙর করা ওই লঞ্চটির তৃতীয় তলার একটি কেবিন থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

বরিশাল সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিটের পরিদর্শক আল-মামুনুল ইসলাম জানিয়েছেন, ওই নারীকে ধর্ষণ শেষে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে খুনিকে শনাক্ত করা গেলেও এখনো তাঁকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।

পারাবত লঞ্চ কম্পানির স্থানীয় কর্মকর্তা মো. সেলিম জানান, গত রবিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর সদরঘাট থেকে এক ব্যক্তি ওই নারীকে নিয়ে লঞ্চের তৃতীয় তলার ৩৯১ নম্বর সিঙ্গল কেবিনে ওঠেন। লঞ্চের রেজিস্টারে তাঁর নাম কামরুল উল্লেখ করা হয়। গতকাল ভোর ৪টা ৪৭ মিনিটে লঞ্চটি বরিশাল নদীবন্দরে নোঙর করলে ওই ব্যক্তি দ্রুত নেমে যান। এ সময় তাঁর মুখে মাস্ক এবং কাঁধে ওই নারীর ওড়না দিয়ে বাঁধা একটি ব্যাগ ঝোলানো ছিল।

বরিশাল সদর নৌ থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, গতকাল ভোরে নোঙরের পর বেলা বাড়লে যাত্রীরা লঞ্চ থেকে নেমে যান। পরে লঞ্চের স্টাফরা কেবিন চেক করতে গিয়ে ৩৯১ নম্বর কেবিনের যাত্রীর লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে কেবিনের ভেতর থেকে সালোয়ার-কামিজ পরা ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে। তবে তাত্ক্ষণিকভাবে নারীর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সোনালী/আরআর

শর্টলিংকঃ