রেকর্ড মূল্যে এ বছর নওহাটা পৌরসভার হাটবাজারের ডাক

  • 2
    Shares

স্টাফ রিপোর্টার: পবার নওহাটা পৌরসভার হাটবাজারগুলো রেকর্ড মূল্যে ডাক হয়েছে। গতবারের চেয়ে এ বছর অনেক বেশি মূল্যে ইজারা দেয়া হয়েছে বলে পৌরসভা সূত্র জানিয়েছে।

জানা গেছে, নওহাটা পৌরসভার অধীনে প্রত্যেক বছর ৫টি হাট-বাজার ডাক হয়। এগুলো হচ্ছে নওহাটা তহবাজার হাট, নওহাটা পশুহাট, বায়া সিন্দুরকুসুম্বী হাট, বাগধানী হাট ও পৌর কসাইখানা। গত বছর অর্থাৎ ১৪২৭ সনে নওহাটা তহবাজার হাট ডাক হয় ৬৩ লাখ ৭৭৭ টাকায়, হাটটি পান চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমিনুল ইসলাম।

নওহাটা পশুহাট ডাক হয় ১ কোটি ১১ লাখ টাকায়, ঐ একই ব্যক্তি পান হাটটি। বায়া সিন্দুরকুসুম্বী হাট ডাক হয় ২২ লাখ টাকায়, পান পবা বৈরাগী পাড়ার জালাল উদ্দিন। বাগধানী হাট ডাক হয় ১ লাখ ৪৯ হাজার ৯০০ টাকায়। পান বাগধানীর শামসুল আলম। পৌর কসাইখানা ডাক হয় ৬৮ হাজার ৭০০ টাকায়। পান নওহাটার সহিদুল হক।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি এ বছর অর্থাৎ ১৪২৮ সনে নওহাটা তহবাজার হাট ডাক হয় ৬০ লাখ টাকায়। সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে হাটটি পান নওহাটার মদনহাটি গ্রামের আ: হাকিম। নওহাটা পশুহাট রেকর্ড পরিমাণ মূল্যে ডাক হয় ১ কোটি ২৩ লাখ ৩১ হাজার টাকা।

সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে হাটটি পান আমশো তানোরের নূর মোহাম্মদ। বায়া সিন্দুরকুসুম্বী হাট ডাক হয় ১৭ লাখ ৬৫ হাজার ৯০০ টাকায়। হাটটি পান বায়ার মিজানুর রহমান। বাগধানী হাট ডাক হয় ১ লাখ ২০ হাজার টাকায়। হাটটি পান বাগধানীর আলী হোসেন। পৌর কসাইখানা ডাক হয় ৯৭ হাজার ৫০০ টাকায়। হাটটি পান সোনারপাড়া মিলন আহমেদ।

এ ব্যাপারে নওহাটা পৌর মেয়র মকবুল হোসেন বলেন, গত কয়েক বছরের চেয়ে এ বছর নওহাটার হাট বাজারগুলো অনেক বেশি মূল্যে ডাক হয়েছে। এতে এ বছর নওহাটা পৌরসভার আয় বাড়বে।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ