রাবি শিৰার্থীদের নিন্দা জ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: ভারতের দিলিৱতে চলমান সাম্প্রদায়িক হত্যাকা-ের ঘটনায় নিন্দা জানিছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিৰক-শিৰার্থীরা। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন’াগারের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন ও সাংস্কৃতিক সমাবেশ থেকে এ নিন্দা প্রতিবাদ জানানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোট এ কর্মসূচির আয়োজন করে।
মানববন্ধনে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক অমিত কুমার দত্ত বলেন, দেশের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা যত বাড়বে, সরকারের শক্তি তত বাড়বে। এ দাঙ্গা আসলে হিন্দু-মুসলমানের সাম্প্র্রদায়িক দাঙ্গা নয়, এটি রাষ্ট্রীয় ৰমতা স’ায়ীকরণের প্রক্রিয়া মাত্র। এই দাঙ্গা দেশে সিএএ বিরোধী উদ্ভূত আন্দোলনকে বিনষ্ট করার প্রচেষ্টা। সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প যেন বাংলাদেশে ছড়াতে না পারে সে বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে।
মানববন্ধনে আব্দুল মজিদ অন্তর বলেন, রাষ্ট্রীয় ৰমতাকে টিকিয়ে রাখার জন্য সরকার বিভিন্ন ইস্যুকে ব্যবহার করে। মোদি সরকারও ধর্মের আশ্রয় নিয়েছেন। মোদি ধর্মান্ধ আর ভারতের ধর্মান্ধ জনগোষ্ঠীকে প্রভাবিত করে সাম্প্রদায়িকতা উস্কে দিয়ে নিজের ৰমতা পাকাপোক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন’ এতে শুধু মুসলমানই নয় হিন্দুরাও এর প্রতিবাদ করেছে। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছড়িয়ে হিন্দুইজম কায়েম করার চেষ্টা করছে মোদি সরকার। আমাদের বাংলাদেশে যেন এ সহিংসতা ছড়িয়ে না পড়ে সেদিকে সরকারকে নজর দিতে হবে।
কন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার রায়ের সঞ্চালনায় সংহতি বক্তব্য দেন বিপৱবী ছাত্র মৈত্রীর রাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক রঞ্জু হাসান, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরৰণ পরিষদের সভাপতি মোর্শেদুল ইসলাম, তীর্থক নাটকের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোত্তালেব ইমন প্রমুখ। কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের অর্ধশতাধিক শিৰার্থী উপসি’ত ছিলেন।

শর্টলিংকঃ