রাবিতে পুলিশি বাধায় প- ছাত্রদলের কর্মসূচি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্রদলের মানববন্ধন কর্মসূচিতে পুলিশি বাধার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে তারা এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। তবে কর্মসূচি শুর্বর মিনিট পরই পুলিশের বাধায় কর্মসূচি প- হয়ে যায়।
ছাত্রদল নেতাকর্মীদের জানান, তারা ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে কর্মসূচি করতে চেয়েছিলেন। কিন’ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পৰ থেকে অনুমতি না পাওয়ায় বাধ্য হয়ে তারা প্রধান ফটকে কর্মসূচি পালন করতে যায়।
যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সানিন চৌধুরী বলেন, আমরা বেশ কয়েকবার অনুমতি পাওয়ার জন্য চেষ্টা করেছি। কিন’ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদেরকে কর্মসূচি করার অনুমতি দেয়নি। আমরা খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি এবং বিদ্যুৎ ও পানির মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে আজ প্রধান ফটকে মানববন্ধন আয়োজন করি। কিন’ কর্মসূচি শুর্ব ৫মিনিটের মধ্যে পুলিশ আমাদের কর্মসূচি বন্ধ করে দেয়।
প্রচার সম্পাদক মেহেদী হাসান বলেন, বর্তমান সরকার অগণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত হয়েছে বিধায় দেশের মানুষের কাছে তাদের কোনো কৈফিয়ত দিতে হয় না। সরকার ইচ্ছামত গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়াচ্ছে। এজন্য দেশের সাধারণ জনগণের ভোগান্তি বেড়েছে। বর্তমান সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে অন্যায়ভাবে অবর্বদ্ধ করে রেখেছেন। দেশে কোনো গণতন্ত্র নেই। আমাদের অধিকার আছে অন্যায়ের বির্বদ্ধে আন্দোলন করার। কিন’ আমাদের সেই অধিকার পর্যন্ত পুলিশের মাধ্যমে কেড়ে নেওয়া হয়েছে।
অনুমতির প্রসঙ্গে প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, কর্মসূচির জন্য ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা আমার কাছে কোনো লিখিত আবেদন করে নি।
নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ পারভেজ বলেন, ‘ ছাত্রদল নেতাকর্মীদের কর্মসূচি করার অনুমতি ছিল না। যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তাদেরকে কর্মসূচি বন্ধ করতে বলা হয়েছে।’
কর্মসূচিতে, শাখার ছাত্রদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ রাহী, সানিন চৌধুরী, মীর তারিক বিন খালিদ, রাশেদ আলী খান,সাংগঠনিক সম্পাদক রাজু আহমেদ, প্রচার সম্পাদক মেহেদী হাসান, জিয়াউর রহমান হল শাখার সভাপতি সর্দার জহুর্বল হক, সদস্য মাহমুদুল মিঠু, জহির্বল ইসলামসহ অর্ধশত নেতাকর্মী উপসি’ত ছিলেন।

শর্টলিংকঃ