রাজশাহী ও নাটোরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

  • 31
    Shares

সোনালী ডেস্ক: রাজশাহীর বাঘায় ও নাটোরের বড়াইগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছে।

বাঘা প্রতিনিধি জানান, বাঘা-আড়ানী সড়কে ভুটভটির ধাক্কায় হাসিব হোসেন (২) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় বাঘা উপজেলার বাঘা-আড়ানী সড়কের আহমোদপুর এলাকায় বাজুবাঘা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। হাসিব উপজেলার আহমোদপুর গ্রামের ইমাম শিমুল হোসেনের ছেলে।

স্থানীয় আব্দুর রাজ্জাক জানান, দুপুর সাড়ে ১২ টায় আড়ানী দিক থেকে একটি ভুটভটি বাঘার দিকে আসছিল। এ সময় রাস্তা পার হওয়ার সময় ওই শিশু হাসিবকে ধাক্কা দেয় এতে শিশুটি গুরুতর আহত হন।

স্থানীয়রা হাসিবকে উদ্ধার করে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্য্রে ভর্তি করেন। পরে ওই শিশুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন ডাক্তার। রাজশাহীতে যাওয়ার পথে বেলা ৩ টায় আড়ানীতে শিশু হাসিবের মৃত্যু হয়।

নাটোর প্রতিনিধি জানান, নাটোরের বড়াইগ্রামে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার নীচে খাদে পড়ে। এতে মা-মেয়ে দুইজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়।

বনপাড়া ফায়ার স্টেশন অফিসার আকরামুল ইসলাম ও বনপাড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার শফিকুল ইসলাম জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে নাটোর -পাবনা মহাসড়কে বনপাড়া থেকে চার কিলোমিটার দূরে গোধড়া এলাকায় পাবনা থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহী গামী চঞ্চল পরিবহন বাস (পাবন ব-১১-০১২৩) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাসে খাদে পড়ে যায়।

এতে পাবনার চাটমোহর উপজেলার নড়াইখালি গ্রামের আব্দুল মান্নানের স্ত্রী হুসনা বেগম (৫০) ও তার মেয়ে রোজিনা খাতুন (৩০) নিহত হয়। এতে শামীম হোসেন (৩৫) সহ আহত হয় কমপক্ষে ১০ জন। আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বনপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ অফিসার তৌহিদুল ইসলাম জানান, যাত্রীবাহী বাসটি অন্য একটি ট্রাককে ওভারটেক করার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়।

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ