রাজশাহীবাসীর প্রতি এমপি বাদশার বিশেষ আহŸান

স্টাফ রিপোর্টার: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে রাজশাহীবাসীর প্রতি বিশেষ আহŸান জানিয়েছেন সদর আসনের সংসদ সদস্য জননেতা ফজলে হোসেন বাদশা।
এক বিবৃতিতে তিনি উল্লেখ করেছেন যে, বিশ্বব্যাপী মহাবিপর্যয় ডেকে এনেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এরইমধ্যে বিশ্বের ১৭২টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ভাইরাসটি। এতে আক্রান্ত হয়েছে দুই লাখ ১৯ হাজার ৩৬৫ জন মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৯৭০ জনের। ইতিমধ্যে বাংলাদেশেও হানা দিয়েছে ভাইরাসটি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী- বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে মোট ১৭ জন। ইতোমধ্যে ৩ জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন। আর এ রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে মৃত্যু হয়েছে একজনের।
তিনি আরও বলেন, চীনের উহান প্রদেশে প্রথম বহিঃপ্রকাশ ঘটলেও বিজ্ঞানীরা এখনও এর উৎস বা কারণ ভালোভাবে জানতে পারেনি। এখনও পর্যন্ত এর প্রতিষেধক ওষুধ আবিষ্কার হয়নি। হয়তো আগামীতে এর প্রতিষেধক আবিষ্কৃত হবে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ এ ব্যাপারে কার্যকর প্রতিরোধের নানাবিধ ব্যবস্থা গ্রহণ করলেও, বাংলাদেশে এ সম্পর্কে যে প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে তা নিতান্তই অপর্যাপ্ত। এমন অবস্থায় এই রোগ বিস্তারের ক্ষেত্রে প্রতিরোধ ব্যবস্থাই একমাত্র উপায় হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। তাই আতঙ্কিত না হয়ে ব্যক্তিগত সচেতনতা গ্রহণই আমাদের একমাত্র পথ।
প্রাণঘাতী এ ভাইরাস যেহেতু মানুষের সংস্পর্শে ছড়াচ্ছে সেহেতু আমাদের সবুজ, সুন্দর রাজশাহীতে এর প্রভাব বিস্তার প্রতিরোধে আপনাদের সকলের ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগ ও সচেনতনা কামনা করি। সেক্ষেত্রে নি¤েœ বিষয়গুলো গুরুত্বসহকারে মেনে চলার জন্য বিশেষভাবে আহŸান জানাচ্ছি।
দুই হাত সাবান অথবা স্যানিটাইজার দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড পরিষ্কার করুন। প্রয়োজনে ডিটারজেন্ট দিয়ে হাত ধোয়া যাবে। সেক্ষেত্রে হাত ধোয়ার পরে হাতে নারিকেল বা সরিষার তেল মেখে নিতে হবে। যেখানে-সেখানে কফ-থুথু ফেলবেন না। স¤প্রতি যারা বিদেশ থেকে এসেছেন এবং তাদের সংস্পর্শে যারা এসেছেন, তারা স্বেচ্ছায় ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকুন। যারা বিদেশ থেকে এসেছেন তাদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বাধ্য করুন। হাত দিয়ে নাক, মুখ ও চোখ স্পর্শ করবেন না। জনসমাগমস্থলে গমন এবং সভা, মিছিল, মিটিং, সেমিনার, রাজনৈতিক ও সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজন ও অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকুন।
হাঁচি-কাশি দেয়ার সময় টিস্যু অথবা কাপড় বা কনই ভাঁজ করে নাক মুখ ঢেকে ফেলুন। করমর্দন ও কোলাকুলি করা থেকে বিরত থাকুন। যেকোন ব্যক্তি হতে ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রাখুন। প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি জাতীয় ফলমূল, শাকসজবি, মধু এবং পানি পান করুন।
এই বিশেষ অবস্থায় নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য/পণ্যের মূল্য অহেতুক বৃদ্ধি করা থেকে বিরত থাকুন। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি সকল নির্দেশনা মেনে চলুন।
আক্রান্ত ব্যক্তি ও পরিচর্যাকারীর মুখে বিশেষ মাস্ক পরতে হবে। কখনোই নাক-মুখ না ঢেকে হাঁচি-কাশি দেবেন না। ব্যবহৃত টিস্যু বা রুমাল যথাযথ জায়গায় ফেলতে হবে। শিশু ও বয়স্কদের বিশেষভাবে সতর্ক থাকতে হবে।
জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট, মাংসপেশি ও গিঁটে ব্যথাসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্তের উপসর্গগুলো দেখা দিলে দ্রæত নি¤েœাক্ত নম্বরে যোগাযোগ করুনঃ আইইসিডিসিআরের হটলাইন নম্বর- ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯৩৭১১০০১১ অথবা সিভিল সার্জন রাজশাহী-০১৭১২৫০১৬১১, উপ-পরিচালক, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল-০১৭১১৩৬৬২৩৫, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, রাসিক ০১৭১৩০৯৮৮৭২।

শর্টলিংকঃ