রাজশাহীতে ১৭ মামলায় ১৯ হাজার টাকা জরিমানা আদায়

  • 15
    Shares

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১৭টি মামলায় ১৯ হাজার ২০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সোমবার দিনভর রাজশাহীর বিভিন্ন এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়। সরকারী নির্দেশ অমান্য, সড়ক পরিবহন আইনসহ বিভিন্ন মামলায় এসব জরিমানা করা হয়।

মঙ্গলবারর জেলা প্রশাসনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নগরীর দামকুড়া, বুলনপুর ও বহরমপুর এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার রনী খাতুন। তিনি সরকারী নির্দেশ অমাণ্যকরণের জন্য তিনজনের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করে ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

নগরীর সাহেববাজার, সাগরপাড়া ও কাটাখালি এলকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার রাফে মোহাম্মদ ছড়া। তিনি সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ আইনে তিনজনের বিরুদ্ধে তিনটি মমালা করে তিন হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। নগরীর উপশহর ও রেলগেট এলাকায় সহকারী কমিশনার নাজিয়া হোসেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। তিনি সড়ক পরিবহন আইনে একজনের বিরুদ্ধে মামলা করে ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এদিকে রাজশাহী মহানগরীতে আলাদা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার অভিজিত সরকার ও জর্জ মিত্র চাকমা। অভিজিত সরকার সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ আইনে দুইজনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করে ৪০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। একই আইনে একজনের বিরুদ্ধে মামলা করে ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন জর্জ মিত্র চাকমা।

অপরদিকে দুর্গাপুর উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার তারিকুল ইসলাম। তিনি একজনের বিরুদ্ধে মামলা করে ২০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। বাগমারা উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার রিফাতুল ইসলাম ও মাহমুদুল হাসান। সরকারী নিদেশ অমান্যকরণের জন্য রিফাতুল ইসলাম দুইজনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করে ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। এই একই আইনে তিনজনের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করে ৩ হাজর ৭০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন মাহমুদুল হাসান।

এদিকে তানোর উপজেলায় ভ্রামাম্যণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো। তিনি সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ আইনে একজনের বিরুদ্ধে মামলা করে ১০ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদয় করেন। অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

সোনালী সংবাদ/এস.এস.কে

শর্টলিংকঃ