মোহনপুরে যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ, গ্রেপ্তার ২

  • 54
    Shares
প্রতীকি ছবি

মোহনপুর প্রতিনিধি:

রাজশাহীর মোহনপুরে যৌতুকের দাবিতে জান্নাতুন ফেরদৌস  রিমা (১৫) হত্যার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- গৃহবধূর শ্বাশুড়ি রেনুকা বেগম (৪৫), ননদ শাকিলা অরুনা (২৬)।

জানা গেছে, উপজেলার মৌগাছি পশ্চিমপাড়া গ্রাম থেকে গতকাল সোমবার রাতে গৃহবধূ রিমার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

এদিকে, গৃহবধূর পরিবারের দাবি- শ্বশুরবাড়ির লোকেরা যৌতুকের দাবিতে রিমাকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করছে। এ ঘটনায় গৃহবধূর বাবা আনারুল ইসলাম বাদী হয়ে রিমার স্বামী, শ্বশুর, শ্বাশুড়ি ও ননদসহ পাঁচজনকে আসামি করে মোহনপুর  থানায় হত্যার মামলা করেছেন।

গৃহবধূর পরিবারের অভিযোগ, এক বছর আগে উপজেলার মৌগাছি পশ্চিমপাড়া গ্রামের আহাদ আলীর ছেলে আবির রায়হানের (২৪) সঙ্গে রিমাকে বিয়ে দেন তারা। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে বাবার বাড়ি থকে ৩ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য রিমাকে চাপ দিতে থাকেন স্বামী আবির রায়হান। তবে বহু কষ্টে দেড় লাখ টাকা দিয়েছেন রিমার বাবা-মা।

রিমার বাবা আনারুল ইসলাম বলেন, বাকি দেড় লাখ টাকা যৌতুক দিতে না পারায়  আমার মেয়ে রিমাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমি থানায় হত্যার মামলা দায়ের করেছি। মেয়ের হত্যায় জড়িতদের বিচার চাই।

মোহনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ  বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ৫ আসামির মধ্যে দুজনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সোনালী সংবাদ/এইচ.এ

শর্টলিংকঃ