মুশফিককে দ্রুত আউট করার সামর্থ্য রাখে রাজশাহী

অনলাইন ডেস্ক:

সদ্য সমাপ্ত প্রেসিডেন্টস কাপের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিম। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে তাই রাজশাহীর জন্য মাথা ব্যাথার কারন হয়ে দাঁড়াতে পারেন তিনি।

তবে দলটির অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত মনে করছেন দেশ সেরা এই ব্যাটসম্যানকে দ্রুত সাজঘরে ফেরানোর সামর্থ্য রাখে তাঁর দল। সেই সঙ্গে ব্যাট হাতেও বেশ আত্মবিশ্বাসী তিনি।

কাগজে কলমের হিসাবে টুর্নামেন্টের বাকি দলগুলোর তুলনায় বেশ দুর্বল দল গড়েছে রাজশাহী। তা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনাও হয়েছে বেশ। ‘এ’ ক্যাটাগরীর একজন ক্রিকেটারও যে নেই তাদের দলে।

এই দল নিয়েই আগামীকাল (২৪ নভেম্বর) বেক্সিমকো ঢাকার মুখোমুখি হবে তাঁরা। যে দলে রয়েছেন মুশফিকের মত ধারাবাহিক পারফর্মার। প্রেসিডেন্টস কাপের শুরুর দিকে ভালো করতে না পারলেও এই শান্তর দলের হয়েই টুর্নামেন্টের একমাত্র সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন। এমনকি দেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যানও তিনি।

তাই স্বভাবতই প্রথম ম্যাচে মুশফিককে নিয়ে দুশ্চিন্তায় পরতে হতে পারে রাজশাহীকে। তবে প্রেসিডেন্টস কাপে মুশফিকের সঙ্গে একই দলে খেলায় তাঁর সম্পর্কে ভালো ধারণা পেয়েছিলেন শান্ত।

সেই ধারনা থেকেই মুশফিক বধের পরিকল্পনা আঁকছে তাঁর দল। সে অনুযায়ী বল করলে মুশফিককে দ্রুত আউট করার সামর্থ্য রাখে রাজশাহীর বোলাররা। এমনটাই মনে করছেন শান্ত।

এ বিষয়ে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই মুশফিক ভাইয়ের সঙ্গে বেশ কয়েকটা ইনিংসে ব্যাটিং করার সুযোগ হয়েছিল। তাঁর অনেক কিছুই জেনে গেছি। তাই আশা করছি যে, যদি আমাদের বোলাররা পরিকল্পনা অনুযায়ী বল করতে পারে অবশ্যই মুশফিক ভাইকে আমরা তাড়াতাড়ি আউট করার সক্ষমতা রাখি।’

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ফিল্ডিং। আর এ নিয়ে শুরুতে ভাবলেও এখন তেমন একটা দুশ্চিন্তা করছেন না রাজশাহীর এই দলপতি। তিনি দাবি করেন সবাই সবার জায়গা থেকে নিয়মিত অনুশীলনের মাধ্যমে ফিল্ডিংটা ঝালিয়ে নিয়েছেন তাঁরা।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আগে এই জিনিসটা নিয়ে অনেক চিন্তা করতাম আমরা সবাই। এখন সবাই সবার জায়গা থেকে ভালোভাবে প্রস্তুত। আমার কাছে মনে হয় সবাই ব্যক্তিগতভাবে নিজের ফিল্ডিং অনুশীলন নিয়মিত করে। আমার মনে হয় না খুব বেশি ইফেক্ট হবে। যেটা বললাম তরুণ ক্রিকেটারও অনেক আছে। চারদিকে চিন্তা করলে কম্বিনেশন ভালো। মনে হয় না ফিল্ডিং সমস্যা হবে।’

মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী: মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, নুরুল হাসান, ফরহাদ রেজা, মোহাম্মদ আশরাফুল, আরাফাত সানি, এবাদত হোসেন, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, রনি তালুকদার, আনিসুল ইমন, রেজাউর রহমান, জাকির আলী, রাকিবুল হাসান সিনিয়র, মুকিদুল ইসলাম ও সানজামুল ইসলাম।

সোনালী সংবাদ/এইচ.এ

শর্টলিংকঃ