মাল মাছ সিগারেট সবই খাই, নির্ঘাৎ জেলে যাব: স্বস্তিকা

অনলাইন ডেস্ক: অভিনেতা সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যুর পর একে একে নানা কাহিনী ঘটছে। জল ঘোলা হচ্ছে। ঘটনার নানা বাক নিচ্ছে। এরইমাঝে অভিনয় শিল্পীদের মাদক কেলেঙ্কারি। তবে বলিউডের মাদক কেলেঙ্কারির মধ্যেও রসিকতা খুঁজে নিল বাঙালি! সম্প্রতি, ম্যানেজার করিশ্মা প্রকাশের সঙ্গে দীপিকা পাড়ুকোনের মাদক নিয়ে কথাবার্তা সামনে এসেছে। সেখানে বলিউড নায়িকা করিশ্মার কাছে জানতে চেয়েছিলেন, ‘মাল’ হ্যায় ক্যায়া?’ ‘মাল’ অর্থে তিনি মাদক বুঝিয়েছিলেন। কিন্তু বাঙালির কাছে ‘মাল’ অন্য জিনিস!

সেই নিয়ে মজার ছলে গত রাতে জনৈক নেটাগরিক টুইটে লেখেন, ‘বাঙালির কাছে মাল মানে তো পানীয় (মদ)! বাঙালিদের নিয়ে ভীষণ দুশ্চিন্তা হচ্ছে।’

সঙ্গে সঙ্গে এই মন্তব্যে পাল্টা রসিকতা করেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘নির্ঘাৎ সবাই জেলে যাব! মাল থেকে মাছ, সিগারেট থেকে জল আমরা তো সবই খাই। বাঙালি সব খায়।’

রসিকতার গন্ধ পেয়েই নড়ে বসেন বাকি নেটাগরিকেরাও। সবাই অভিনেত্রীকেই সমর্থন করেছেন। এক নেটাগরিক কালো গেঞ্জিতে বড় হরফে লিখেছেন, ‘হাঁ, হাম বাঙালি হ্যায়। হাম জল খাতা হ্যায়।’ আর এক জনের মন্তব্য, ‘একদম ঠিক আমরা পানীয় পান করি না। মদ খাই!’

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুরহস্যের কিনারা করতে গিয়ে মাদক কেলেঙ্কারি নিয়ে হইচই অবশ্য মেনে নেয়নি বাংলা। শুক্রবার টুইটে বিস্ফোরক সাংসদ-অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী, ‘বলিউডে নায়িকারাই শুধু মাদকাসক্ত! পুরুষেরা কী করেন? ঘর পরিষ্কার করেন, রান্না করেন আর জোড়হাতে তাঁদের বউদের জন্য ভগবানের কাছে প্রার্থনা করেন, ‘‘ভগবান ওদের রক্ষা কর?’

বিরোধিতা করে মতামত জানিয়েছেন বাংলার এই প্রজন্মের তিন অভিনেতা সায়নী ঘোষ, সাহেব ভট্টাচার্য, অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়ও। তাঁদের সন্দেহ, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি থেকে সবার নজর ঘোরাতেই বলিউডের মাদক যোগের রিপিট টেলিকাস্ট হচ্ছে না তো?

সোনালী/আরআর

শর্টলিংকঃ