ভারত অংশ না নিলে মুজিববর্ষ পূর্ণতা পাবে না: তথ্যমন্ত্রী

সোনালী ডেস্ক: মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের অংশগগ্রহণ না থাকলে মুজিববর্ষের পূর্ণতা পাবে না বলে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে, সেখানে ক্ষমতায় কোন সরকার তা বিবেচ্য নয়। গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।
মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতার বিষয়ে জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আগামী ১৭ মার্চ মুজিববর্ষে শুর্ব হচ্ছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তিনি সেই আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল বেশ কয়েক মাস আগে। সেটি গ্রহণও করেছেন বেশ কয়েক মাস আগে। বাংলাদেশের জাতির পিতার জন্মবার্ষিকীতে তিনি আসবেন।
তিনি বলেন, আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামে কোনো দেশের যদি এককভাবে সবচেয়ে বেশি অবদান থাকে, সেটি হচ্ছে ভারত। আমাদের দেশের এক কোটি মানুষ ভারতে গিয়ে আশ্রয় গ্রহণ করেছিল। তৎকালীন ভারত সরকার আমাদের সহযোগিতা করেছিল। বঙ্গবন্ধুর মুক্তির জন্য তৎকালীন ভারত সরকার, তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী বিভিন্ন দেশে ছুটে গিয়েছিলেন। সেই আন্তর্জাতিক চাপের কারণে, বিশ্ব জনমতের কারণেই কিন’ পাকিস্তান বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিল। স্বাধীনতা পূর্ণতা পেয়েছিল। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর আমরা স্বাধীনতা অর্জন করলেও ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের ফিরে এসেছিলেন পাকিস্তানের কারাগার থেকে, সেদিনই প্রকৃতপক্ষে স্বাধীনতা পূর্ণতা পেয়েছিল।
হাছান মাহমুদ বলেন, সেই কারণেই মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের অবদান, বঙ্গবন্ধুকে মুক্ত করার জন্য ভারতের যে অবদান এসব বিবেচনা করেই মুজিববর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মুজিববর্ষকে সামনে রেখে বাংলাদেশে এখন উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে জানিয়ে তিনি বলেন, মানুষ উন্মুখ হয়ে বসে আছে, সেই কারণে পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রগুলোর অনেককে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মুজিব জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান যদি ভারতের অংশগ্রহণ না থাকে আমি মনে করি তাহলে মুজিববর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পূর্ণতা পায় না।

শর্টলিংকঃ