বন্ধুত্বের টিকা এসেছে, প্রয়োগের অপেক্ষা

  • 12
    Shares

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে ভারত সরকারের দেয়া উপহার ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা এসে পৌঁছেছে বাংলাদেশে। আরও ২৫ লাখ আসবে ২৫ জানুয়ারি। এ টিকা ভারতের সাথে চুক্তির ৩ কোটি টিকার প্রথম চালান। ফলে টিকা আসা নিয়ে যে অনিশ্চয়তা তা দূর হয়েছে। এখন প্রয়োগের প্রস্তুতির ওপরই নির্ভর করছে টিকা দেয়া। ভারতে টিকা প্রয়োগ শুরু হয়েছে গত শনিবার।

রাজশাহীতে করোনা টিকা প্রয়োগে চারটি কেন্দ্র প্রস্তুত থাকার কথা জানা গেছে। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক জানিয়েছেন, প্রতিটি কেন্দ্রে চারটি করে মোট ১৬টি বুথে টিকা প্রয়োগ করা হবে। এ জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ। তবে কিভাবে কবে থেকে প্রয়োগ করা হবে তা ঠিক হয়নি। টিকা আসার পর সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

ঢাকায় স্বাস্থ্যমন্ত্রীও জানিয়েছেন, কবে টিকা প্রয়োগ শুরু হবে তার কোনো সময় এখনো ঠিক হয়নি। প্রধানমন্ত্রী সময় দিলেই দিন-ক্ষণ ঠিক হবে। তবে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, টিকা নেয়ার নিবন্ধনে দেরি হওয়াই আসল কারণ। অ্যাপসে নিবন্ধনের মাধ্যমে টিকা দেয়ার ব্যবস্থা চূড়ান্ত হতে আরো ক’দিন অপেক্ষা করতে হবে। তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে সুরক্ষা অ্যাপস চূড়ান্ত করার কাজ শেষে তা ২৫ জানুয়ারি হস্তান্তর করার কথাও পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে জানা গেছে। এ ক্ষেত্রে আগাম প্রস্তুতির অভাব এখন পরিষ্কার।

করোনা মহামারির শুরুতে স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্টদের কারণে সৃষ্ট নানা জটিলতায় সরকারকে সমালোচানার মুখে পড়তে হয়েছিল। তারপর দীর্ঘ সময় গেছে। পরিস্থিতি সামাল দিয়ে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাফল্যের দেখাও মিলেছে। কিন্তু করোনার টিকা প্রয়োগের প্রস্তুতির অভাবে এখন হাতে পেয়েও টিকা প্রয়োগে দেরি হচ্ছে। টিকা প্রয়োগের জন্য ৪২ হাজার কর্মীর প্রশিক্ষণ এখনও শেষ হয়নি। এছাড়া রয়েছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়টি। এই দেরি হওয়ার সুযোগে বলা হচ্ছে নানা কথা। গুজব-সন্দেহের ডালপালা ছড়াচ্ছে মহল বিশেষ।

তবে বাংলাদেশের মানুষ যেহেতু টিকার সাথে বহু আগ থেকেই পরিচিত তাই এসবে কান দেয়ার কিছু নেই। যে কোনো টিকারই কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। টিকা দেয়ার পর জ্বর, ব্যথা, সর্দি হতে পারে। তার চিকিৎসাও আছে। তাই করোনা মহামারি থেকে রক্ষা পেতে টিকা নিতে মানুষের আগ্রহের অভাব হবে না। আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে করোনার টিকা প্রয়োগ শুরু হলেই তার প্রমাণ পাওয়া যাবে। এখন অপেক্ষার পালা।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ