বন্দুক ঠেকিয়ে ধর্ষণ, আটক শেহনাজের বাবা

অনলাইন ডেস্ক: মেয়ের থেকেও কমবয়সী এক যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক করা হল ‘বিগ বস ১৩’ সিজনের অন্যতম প্রতিযোগী শেহনাজ গিলের বাবাকে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, শেহনাজের বাবা সন্তোখ সিং জলন্ধরের ২০ বছরের এক যুবতীকে মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ধর্ষণ করেছেন।

ঘটনাটি ঘটে গত ১৪ মে। তবে অভিযোগ দায়ের হয়েছে সম্প্রতি। সেই অভিযোগে বলা হয়েছে, শেহনাজের বাবা সন্তোখ ওরফে সুখ প্রধান নিজের গাড়িতে তুলে নিয়ে ২০ বছরের ওই যুবতীকে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি কাউকে জানালে পরিনাম ভয়াবহ হতে পারে, এমন হুমকি দিয়ে মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ধর্ষণ করেন বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই যুবতী।

ইতোমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু রেছে পুলিশ। শেহনাজ গিলের বাবা নামে মামলাও হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ১৪ মে ওই যুবতী এবং তার এক বান্ধবী জলন্ধর থেকে বিয়াসের দিকে যাচ্ছিলেন লাকি সিন্ধু নামে তাদেরই এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে। বিয়াসে পৌঁছাতেই ঘটে বিপদ।

বিকাল সাড়ে ৫টা নাগাদ ওই যুবতী বিয়াসে পৌঁছান। তারপরই তাকে গাড়িতে তুলে নিয়ে মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত। প্রাণে মেরে দেয়ার হুমকিও দেয়া হয়। পুলিশকে ওই যুবতী জানিয়েছেন, ভয়ে বিষয়টি তিনি কাউকে জানাতে পারছিলেন না। কিন্তু বিষয়টি বন্ধুদের জানালে তারা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়েরের পরামর্শ দেয়।

তার পর গত ১৯ মে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জমা করেন ওই যুবতী। অমৃতসরের সিনিয়র পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট বিক্রমজিত সিং দুগ্গল জানিয়েছেন, পুলিশ আইপিসির ৩৭৬, ৫০৬ ধারায় বিয়াস থানায় মামলা করেছে। ইতোমধ্যে শেহনাজের বাবা পুলিশের হাতে আটকও হয়েছেন।

সোনালী সংবাদ/আর.আর

শর্টলিংকঃ