বগুড়ায় কলেজছাত্রকে অপহরণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৩

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ায় চাঁদার দাবিতে কলেজছাত্রকে অপহরণের পর আটক রেখে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা ও নির্যাতনের অভিযোগে ছাত্রলীগের ৩ কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে বগুড়া সদর পুলিশ।
ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাতে বগুড়া শহরের জহুর্বল নগর এলাকায়। গ্রেপ্তারকৃতরা হল, নন্দিগ্রাম উপজেলার পন্ডিতপুকুর এলাকার সফের আলীর পুত্র ফয়সাল হাসান (২৪), দুপচাঁচিয়া উপজেলার গোবিন্দপুর তালুকদারপাড়া এলাকার আমানউলৱাহ আমানের ছেলে তানজিম হোসেন শুভ (২২) এবং কাহালু উপজেলার সোনারপাড়া জামগ্রামের রায়হান আলীর ছেলে রাকিব হাসান (২২)। তারা সকলেই বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ শাখার ছাত্রলীগ সদস্য।
পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারকৃতরা শহরের জহুর্বল নগর এলাকায় সায়েম ও নিবিড় নামের দুটি ছাত্রবাসে থাকে। পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে গত সোমবার রাতে তারা এমরান হোসেন (২২) নামের বগুড়া সরকারি শাহ সুলতান কলেজের এক ছাত্রকে কথা আছে বলে মোবাইল ফোনে ডেকে নেয়। এসময় এমরান সেখানে গেলে তাকে সেখানকার নিবির ছাত্রবাসে নিয়ে যায় তারা। পরে ফয়সাল হোসেন তার কাছে ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এতে অপারগতা জানালে এমরানকে মারপিট করাসহ মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন চালায় তারা। পরদিন মঙ্গলবার ১৫ হাজার টাকা না দিলে তাকে প্রাণনাশসহ বিভিন্ন হুমকি ধামকী প্রদান করে তারা। এসময় এমরান তার এক বন্ধুর নিকট থেকে বিকাশের মাধ্যমে ৬ শ টাকা তাদের দেয়। পরে গভীর রাতে আহত অবস’ায় সুযোগ বুঝে সেখান থেকে পালিয়ে সরাসরি থানায় আসে সে।
থানায় তার সুনিদিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে বগুড়া সদর থানার এসআই সোহেল রানা, এসআই জহুর্বল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল রাতেই জহুর্বল নগর এলাকার শায়েম ও নিবির ছাত্রবাসে অভিযান চালিয়ে ফয়সাল হাসান, তানজিম হোসেন শুভ ও রাকিব হাসানকে গ্রেপ্তার করে। এসময় ছাত্রবাসে এমরানকে আটক ও নির্যাতনের বিভিন্ন সত্যতা নিশ্চিত হয় পুলিশ ।

শর্টলিংকঃ