বগুড়ার ডিসি হলেন চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী!

অনলাইন ডেস্ক: বগুড়ায় এক ঘণ্টার জন্য জেলা প্রশাসকের (ডিসি) দায়িত্ব পেলেন ন্যাশনাল চিলড্রেনস্ টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ) বগুড়ার সভাপতি কলেজছাত্রী পুষ্পা খাতুন।

বুধবার জেলা প্রশাসকের অফিস কক্ষে উন্নয়ন সংস্থা প্ল্যান ইন্টারন্যাশনালের সহযোগিতায় ‘গার্লস টেকওভার’ কর্মসূচির আওতায় ন্যাশনাল চিলড্রেন টাস্কফোর্সের (এনসিটিএফ) এর আয়োজনে তাকে জেলা প্রশাসকের এ দায়িত্ব দেয়া হয়।

বগুড়া সরকারি পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের চতুর্থ বর্ষে ছাত্রী ও এনসিটিএফের জেলা সভাপতি পুষ্পা খাতুন এক ঘণ্টার জন্য বগুড়া জেলার জেলা প্রশাসকের ‘প্রতীকী দায়িত্ব’ পালন করেন।

জেলা প্রশাসক জিয়াউল হকের কাছ থেকে এসময় প্রতীকীভাবে দায়িত্ব বুঝে নেন পুষ্পা খাতুন। এসময় তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। প্রতীকি ডিসি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে পুষ্পা খাতুন বগুড়াকে শিশুবান্ধব জেলা হিসেবে গড়ে তোলা, বাল্যবিবাহের হার শূন্যের হার নামিয়ে আনা, শিশুর প্রতি সব ধরনের সহিংসতা বন্ধ করে তাদের নেতৃত্ব বিকাশে জেলা পর্যায়ে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার বিষয়ে সুপারিশমালা প্রদান করেন।

এ প্রসঙ্গে বগুড়ার জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক সন্তুষ্টি প্রকাশ করে তিনি শিশুদের প্রতিনিধি পুষ্পার মাধ্যমেই সকল শিশুকে মুক্তমনা হিসেবে বেড়ে উঠে দেশের সর্বোচ্চ পদগুলো অর্জনের মাধ্যমে ভবিষ্যতে নেতৃত্ব দেওয়ার লক্ষে প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, গার্লস টেকওভার কর্মসূচির মাধ্যমে কন্যা শিশুরা উৎসাহিত হবে এবং নিজেদের স্বপ্নপূরণেও অঙ্গিকারবদ্ধ হবে। শিশুদের অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বগুড়াকে শিশুবান্ধব জেলা হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষেও তিনি সর্বদা ইতিবাচক ভূমিকা রাখবেন বলে প্রতিশ্রুতিও দেন। তবে করোনাকালীন মাস্কের যথাযথ ব্যবহারসহ সকলকে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান ডিসি জিয়াউল হক।

এনসিটিএফ বগুড়ার জেলা ভলেন্টিয়ার গণমাধ্যমকর্মী সঞ্জু রায় এবং পারমিতা ভট্টাচার্য স্বর্ণার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় গার্লস টেকওভার কার্যক্রমে এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাসুম আলী বেগ, সহকারী কমিশনার (গোপনীয়) আশরাফুর রহমান এবং এনসিটিএফ বগুড়ার উপদেষ্টা দৈনিক করতোয়ার বার্তা সম্পাদক প্রদীপ ভট্টাচার্য শংকরসহ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ।

সোনালী/আরআর

শর্টলিংকঃ