প্রাথমিকে প্যানেলভুক্ত শিক্ষক নিয়োগের দাবি

সোনালী ডেস্ক: প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ প্যানেলে (লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের পরবর্তীতে ধাপে ধাপে নিয়োগ) নিয়োগ চান চাকরিপ্রত্যাশীরা। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং সাক্ষাৎকারে অংশগ্রহণকারী সবাইকে প্যানেলভুক্ত করে অবিলম্বে নিয়োগ দেয়ার দাবিতে অবস’ান কর্মসূচি পালন করেছেন নিয়োগবঞ্চিতরা। গতকাল মঙ্গলবার ৬১টি জেলার ব্যানারে তারা অবস’ান কর্মসূচি পালন করেন।
আন্দোলনকারীরা জানান, গত ৬ বছর ধরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধ ছিল। এ কারণে ২০১৮ সালে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে সারাদেশ থেকে ২৪ লাখ পরীক্ষার্থী অংশ নেন। এর মধ্যে ৫৫ হাজার ২৯৫ জন লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং ১৮ হাজার ১৪৭ জন চূড়ান্তভাবে নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হন। মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে না পেরে প্রায় ৩৭ হাজার ১৪৮ জন নিয়োগ থেকে বঞ্চিত হন। তারা আরও জানান, ২০১০, ২০১২, ২০১৩ ও ২০১৪ সালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে প্যানেল গঠন করে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হলেও ২০১৮ সালের নিয়োগ কার্যক্রমে প্যানেল গঠনের জন্য এখনও পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ কার্যকরী কোনো প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। এছাড়া প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম পরিচালনায় দীর্ঘ সময়ক্ষেপণ করা হয়। শিক্ষক নিয়োগ দ্র্বত শেষ করাসহ নিয়োগ কার্যক্রমে সব ধরনের কোটা বাতিলের দাবি জানান তারা। এসব দাবিতে দেশের ৬১ জেলার ব্যানারে বঞ্চিত প্রায় সহস্রাধিক পরীক্ষার্থী জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস’ান কর্মসূচি পালন করছেন। এ দাবিতে প্রধানমন্ত্রী, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রীসহ সরকারের উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তি বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন।
কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টাম-লীর সদস্য মাসুদ পারভেজ বলেন, গত ছয় বছর ধরে প্রাথমিকে শিক্ষক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় ২৪ লাখের বেশি প্রার্থী ২০১৮ সালের নিয়োগে আবেদন করেন। অন্যান্য বছরে লিখিত পরীক্ষায় পাস করা প্রার্থীদের প্যানেলভুক্ত নিয়োগ দেয়া হলেও এবার তা করা হচ্ছে না। ঘরে ঘরে চাকরি সরকারের প্রতিশ্র্বতি অনুযায়ী, মুজিববর্ষ উপলক্ষে নিয়োগ পরীক্ষায় পাস করা প্রার্থীদের প্যানেলভুক্ত করে নিয়োগের দাবি জানান তারা।
তিনি বলেন, সারাদেশে ৩০ হাজারের বেশি সহকারী শিক্ষক পদ শূন্য রয়েছে অথচ আমরা ৩৭ হাজারের বেশি পরীক্ষার্থী লিখিত পরীক্ষায় পাস করলেও তাদের প্যানেলভুক্ত করে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে না। এ দাবিতে দেশের ৬১ জেলার বঞ্চিত প্রার্থীরা প্রেসক্লাবের সামনে একত্র হয়ে অবস’ান কর্মসূচি পালন করছি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অবস’ান কর্মসূচি পালন করে যাবেন বলেও জানান।

শর্টলিংকঃ