প্রতি ১৫ সেকেন্ডে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন একজন নারী

স্টাফ রিপোর্টার: সারাবিশ্বে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজন করে নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন। আর প্রতি পাঁচ ঘণ্টায় মারা যাচ্ছেন ছয়জন। বিশ^ ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে রাজশাহীতে আয়োজিত এক সেমিনারে এ তথ্য উঠে এসেছে। গতকাল বুধবার রাজশাহীর বারিন্দ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে সেমিনারটির আয়োজন করা হয়।
স্তন ও জরায়ুমুখ ক্যান্সার সচেতনতায় গণমুখী এই সেমিনারে বারিন্দ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অনকোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক দায়েম উদ্দীন প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, পৃথিবীতে প্রতি ১৫ সেকেন্ডে একজন করে নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন। আর আক্রান্তদের মধ্যে প্রতি পাঁচ ঘণ্টায় মারা যাচ্ছেন ছয়জন। এটি রীতিমতো উদ্বেগজনক।
তিনি আরও বলেন, বর্তমানে অনেক নারীই স্তন ও জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন। একটি প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, ২০১৮ সালে বাংলাদেশে ৮ হাজার ৬৮ জন নারী জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। আর বছরে ১ লাখ নারীর মধ্যে ১৯ দশমিক শূন্য ৩ জন নারী আক্রান্ত হচ্ছেন স্তন ক্যান্সারে। এই সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে।
ডা. দায়েম উদ্দীন বলেন, স্তন ও জরায়ু ক্যান্সার সম্পর্কে মানুষের মধ্যে ভুল ধারণা আছে। অনেকেই মনে করেন ক্যান্সার হলেই মৃত্যু অনিবার্য। কিন্তু এখন চিকিৎসা বিজ্ঞানে অনেক উন্নতি হয়েছে। স্তন ক্যান্সার ও জরায়ু ক্যান্সার নিরাময়যোগ্য। কিন্তু তার জন্য সঠিক চিকিৎসা দরকার। আবার রোগ থেকে বাঁচতে দরকার সচেতনতাও।
সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বারিন্দ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শামসুদ্দিন। উপস্থিত ছিলেন সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক মঞ্জুরুল হক, গাইনি অ্যান্ড অবস্ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক গোপা সরকার প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন ফিজিওলজি বিভাগের অধ্যাপক গোপাল চন্দ্র সরকার। সেমিনার পরিচালনা করেন ইউরোলজি বিভাগের অধ্যাপক এ বি এম গোলাম রাব্বানী।
বিশ^ ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে সেমিনারের আগে হাসপাতাল প্রাঙ্গণ থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবারো হাসপাতাল প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়।

শর্টলিংকঃ