পরীক্ষায় অসাদুপায় অবলম্বনের দায়ে রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগ নেতা বহিস্কার

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন অনুষ্ঠিত অনার্স তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষায় অসাদুপায় অবলম্বনের দায়ে রাজশাহী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে রতন মাহাবুব মানিক নামে এক পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে তাকে বহিস্কাারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর সাবরীনা শাহনাজ চৌধুরী। বহিষ্কৃত রতন রাজশাহী কলেজের দর্শন বিভাগের শিক্ষার্থী। বর্তমানে তিনি রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রয়েছেন।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা শেষ হয়েছে গত মঙ্গলবার। জানা গেছে, গত ২২ তারিখে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে রাজশাহী মহিলা কলেজে পরীক্ষা চলাকালে ভারতীয় দর্শন পেপারের পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করেন রতন মাহাবুব মানিক। এ সময় কলেজের ২০৫ নম্বর কক্ষে পরীক্ষা দায়িত্বরত শিক্ষক তাকে ধরে ফেলেন। পরে তাকে বহিষ্কার করেন ওই শিক্ষক।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ২০৫ নম্বর কক্ষের এক পরীক্ষার্থী জানান, পরীক্ষার শুরু থেকেই রতনের পরিবর্তে দর্শন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী তার প্রক্সি দিয়ে আসছিলেন। পরে তার পরিবর্তে মাস্টার্সের এক শিক্ষার্থীকে চাপ প্রয়োগ করে রতনের জায়গায় পরীক্ষা দেওয়ানো হচ্ছিল। কিন্তু গত শনিবার পরীক্ষায় দায়িত্বরত শিক্ষকের সন্দেহ হলে প্রবেশপত্রের সাথে চেহারার মিল না পেয়ে তাকে হল থেকে বের করে দেন।
তবে মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর সাবরীনা শাহনাজ চৌধুরী জানান, রতন নিজেই পরীক্ষায় বসেছিলেন। এ সময় পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় তাকে বহিষ্কার করা হয় বলে জানান তিনি।

শর্টলিংকঃ