নেটওয়ার্ক পেতে প্রতিদিন পাহাড়ে চড়ে অনলাইন ক্লাস

অনলাইন ডেস্ক: করোনা পরিস্থিতির কারণে বন্ধ সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে নিয়মিত শিক্ষা ব্যাহত না হতে চালু হয়েছে অনলাইন ক্লাস। কিন্তু গ্রামে মোবাইল নেটওয়ার্ক না থাকায় প্রতিদিন পাহাড়ে চড়তে হয় এক কিশোরকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, রাজস্থানের বারমারের এক গ্রামের বাসিন্দা এ কিশোর। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে কিশোর হরিশের এ গল্প।

করোনার কারণে স্কুল বন্ধ হওয়ায় চলছে অনলাইন ক্লাস। তবে ফোনে নেটওয়ার্ক নিয়ে সমস্যায় পড়ায় হরিশের বাড়ে দুশ্চিন্তা।

শেষপর্যন্ত পাহাড়ে উঠে ক্লাস করার বিষয়েই মনস্থির করে ফেলে সে। নয়ত ক্লাস করতে না পারলেই পিছিয়ে পড়বে সে। তাই প্রতিদিন সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ বাড়ি থেকে বেড়িয়ে পড়ে সে।

টেবিল-চেয়ার, বই-খাতা হাতে নিয়েই আট’‌টার মধ্যে পাহাড়ে ওঠে পড়ে হরিশ। দুপুর দু’‌টা পর্যন্ত ক্লাস করে ফের নেমে আসে সে।

গত ৩৪ দিন ধরে এভাবেই পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের এই শিক্ষার্থী।

হরিশের ছবি টুইটারে শেয়ার করেছেন সাবেক ক্রিকেট তারকা বীরেন্দ্র শেহবাগও। তিনি এই কিশোরের পাশে থাকার আশ্বাসও দিয়েছেন।

শেহবাগ লিখেছেন, ‘হরিশ নামে রাজস্থানের বারমারের এক ছাত্র অনলাইন ক্লাসের জন্য নেটওয়ার্ক পেতে একটি পাহাড়ে ওঠে। সকাল আটটা থেকে দুপুর দু’‌টা পর্যন্ত ক্লাস করে বাড়ি ফেরে। হরিশের এই লড়াই যথেষ্ট প্রশংসনীয়। প্রয়োজনে তাঁকে সাহায্য করতে চাই।’‌

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ