নগরীতে তিনটি বাড়ি ভাঙচুর, আহত ৪

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী নগরীরর ভাটাপাড়ায় তিনটি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে সন্ত্রাসীরা। এরমধ্যে একটি মুদির দোকানও রয়েছে। গত শুক্রবার রাত ৭টার দিকে নগরীর ভাটাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে গতকাল শনিবার নগরীর রাজপাড়া থানায় মামলা হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, ভাটাপাড়ার কামাল খাঁ এলাকায় এই সন্ত্রাসী হামলা চালায় চন্ডিপুরের তাজ উদ্দিনের ছেলে সজিব ও তার সহযোগিরা। ভাটাপাড়ার সাওয়ার হোসেন নিশাদ বলেন, তাদের নিজ বাড়িতে একটি মুদির দোকান রয়েছে। এই দোকানে সজিব বিভিন্ন সময়ে ধার খেতেন। এই ধারের টাকা চাওয়াতে দোকান ভাঙচুর করে তারা। এ সময়ে বাধা দিতে গেলে দেশি ধারালো অস্ত্র দিয়ে সজীব আঘাত করে নিশাদের ফুফাতো ভাই দরগাপাড়ার সগির হোসেনের ছেলে তামিম হোসেন শাকিবকে (২৩)।
এছাড়াও নিশাদের চাচাতো ভাই তরিকুল ইসলাম মিঠুকে (৩০) পিঠে হাসুয়া দিয়ে আঘাত করে, শাকিবের মা রেখা বেগমকে ইট দিয়ে আঘাত করে পায়ের আঙ্গুল থেঁতলে দেয়। তারা সবাই এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন। সেইসাথে নিশাদের আরেক ফুফাতো ভাইও আঘাতপ্রাপ্ত হন। অবশ্য তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।
নিশাদের মা বলেন, দোকান ভাঙচুরের আগে ভাটাপাড়ার মাবিয়ার বাড়িতে সজীবরা তাÐব চালিয়ে তিনটি ঘরের টিভি, ফ্রিজ, শোকেস, আলমারি, রাইস কুকার ও বাক্সসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ভেঙে ফেলে এবং সব কিছু তসনছ করে বাড়ি থেকে ১০ ভরি সোনা ও নগদ এক লক্ষ টাকা নিয়ে যায় বলে জানান মাবিয়া। এসময়ে বাড়িতে কেউ ছিল না বলে জানান মাবিয়া। তিনি বলেন, এই টাকা ও সোনা তার মেয়ের। নিরাপত্তার জন্য তার নিকট রেখেছিলেন বলে জানান তিনি।
রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ শাহাদত খান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, দুইজন এজাহারভুক্ত এবং ৫-৬ জনকে অজ্ঞাতনামা দেখিয়ে মামলা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

শর্টলিংকঃ