নকশা ছাড়াই ইমারত নির্মাণ

স্টাফ রিপোর্টার: নগরীর মহিষবাথান এলাকায় রাজশাহী উন্নয়ন কতৃপক্ষের অনুমোদিত নকশা ছাড়াই জনৈক মাসুদ রানার বিরুদ্ধে ইমারত (বাড়ি) নির্মানের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান বরাবর অবৈধ ইমারত নির্মান কাজ বন্ধ রাখতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গত ২২ ও ২৬ জানুয়ারি মোজাহারুল ইসলাম ও সামসুল হোদা লিখিত অভিযোগ দেয়। তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইমারত নির্মাণ পরিদর্শক সাইদুর রহমান ইমারতের স্থান ও ইমারত পরিদর্শন করেন। এর প্রেক্ষিতে ইমারত নির্মাণ কমিটির পক্ষে উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অথরাইজড অফিসার ৩/২/২০২০ তারিখ স্মারক নং- ০৪০.০০৫.০০২.০০০ পত্র মারফত ইমারত নির্মাতা মাসুদ রানা এবং অভিযোগকারি পক্ষকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ শুনানিতে উপস্থিত থাকার জন্য ১৮/২/২০২০ তারিখ দিন ধার্য্য করেন। ওই পত্রে পুনরাদেশ না দেয়া পর্যন্ত মাসুদ রানাকে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়। অভিযোগকারি পক্ষ দৈনিক সোনালী সংবাদকে জানান, ওইদিন তারা উপস্থিত থাকলেও অভিযুক্ত মাসুদ রানা হাজির হননি। এমনকি নির্মাণ কাজও চালিয়ে যাচ্ছেন। এতে করে পুনরায় ১০/৩/২০২০ তারিখ আবারও বিষয়টি অবহিত করে সামসুল হোদা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে লিখিত ভাবে জানান। লিখিত আবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে ওই ভবনের দ্বিতীয় তলার নির্মাণ কাজ চলছে। আর এ বিষয়টিকে ঘিরে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
বিষয়টি জানতে গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে মাসুদ রানার ০১৭১৯-৯৭৭৩৯৭ নম্বর মোবাইলে ফোন দিলে সে সাংবাদিক পরিচয় জানার পর নিজেকেই সোনালী সংবাদের সাংবাদিক হিসাবে পরিচয় দিয়ে এই প্রতিনিধির নাম জানতে চান। পরে জানান নক্সা ছাড়া কি বাড়ি করা যায় এ কথা বলার পর ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।
এ বিষয়ে রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের অথরাইজড অফিসার আবুল কালাম আজাদের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ইমারত নির্মাণে অনিয়ম হয়ে থাকলে নির্মাণ কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

শর্টলিংকঃ