ধামইরহাটে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ অভিযোগ

  • 12
    Shares

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর ধামইরহাটে বিয়ের প্রলোভনে এক সন্তানের জননীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভিকটিম ধর্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনাটি ঘটে উপজেলার পৌর সদরস্থ আমাইতাড়া গ্রামে।

থানার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ধামইরহাট পৌর সদরস্থ হাসপাতালের সামনে একটি ডায়গনস্টিক সেন্টারে চাকুরি করতেন এক সন্তানের জননী স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারী (২০)। তাকে বিয়ের প্রলোভনে ধামইরহাট-জয়পুরহাট বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করতো আমাইতাড়া বাজারের স্বর্ণালংকার ব্যবসায়ী মহব্বত আলী ওরফে নান্নু সোনার (৪৫)।

ঘটনার দিন ২২ সেপ্টেম্বর দুপুরে একই ভাবে বিয়ের কথা বলে আমাইতাড়া গ্রামের নিজ ফ্ল্যাটে ভিকটিমকে ডাকে ধর্ষক মহব্বত আলী ওরফে নান্নু সোনার। পরে তাকে ধর্ষণ করে এবং মেয়েটির চিৎকারে স্থানীয়দের সহযোগিতায় থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করে বলে এজাহারে উল্লেখ করেন ভিকটিম।

এ বিষয়ে বুধবার ধর্ষিতা বাদী হয়ে ধামইরহাট থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

ধামইরহাট থানার ওসি আবদুল মমিন জানান, ধর্ষিতার অভিযোগ আমলে নিয়ে ধর্ষণ মামলা রুজু করা হয়েছে। আসামী পলাতক থাকলেও তাকে গ্রেফতারে থানা পুলিশ মাঠে রয়েছে।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ