ধান-চালের দাম বেঁধে দেয়ার সুফল পাচ্ছে মানুষ: খাদ্যমন্ত্রী

  • 41
    Shares

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: সরকারি ভাবে ধান-চালের দাম বেঁধে দেয়ার সুফল পাচ্ছে কৃষক, ভোক্তা সবাই। এমন মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। রবিবার সকালে নওগাঁর সাপাহারে আমন ধান সংগ্রহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মওসুমের শুরুতে অনেকে সিন্ডিকেট করে কম দামে ধান কিনে কৃষকদের ঠকায়। এ জন্য সরকারি ভাবে দর বেঁধে দিয়ে সংগ্রহ করা হয়। এবার নতুন আমন ধানে ভাল দাম পেয়ে খুশি কৃষক। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে বাজার দর ও মজুত পরিস্থিতির উপড় তীক্ষè দৃষ্টি রাখা হয়েছে। প্রয়োজনে লক্ষ্যমাত্রার অতিরিক্ত ধান সংগ্রহ করবে সরকার।

মন্ত্রী আরও বলেন, সরকারি মজুতের জন্য চাল আমদানি করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে তার পরিমাণ নির্ভর করছে বাজার দর স্থিতিশীলতার ওপর। ধান-চালের বাজারে কাউকে সিন্ডিকেট করতে দেয়া হবে না। বেসরকারি ভাবে কেউ আমদানির সুযোগ পাবেনা বলেও জানান মন্ত্রী।

চলতি মওসুমে সরকারি ভাবে মিলারদের কাছ থেকে ছয় লাখ মেট্রিক টন চাল ও কৃষকদের কাছ থেকে দুই লাখ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার। ৭ নভেম্বর ধান ও ১৫ নভেম্বর থেকে চাল সংগ্রহ শুরু হয়েছে।

অনুষ্ঠানে খাদ্য বিভাগ ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা, জন প্রতিনিধি, কৃষক ও অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ৪২ তম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহের স্টল পরিদর্শন শেষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি। ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধুরী। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান হোসেন মণ্ডল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শামসুল আলম শাহ চৌধুরী, থানার অফিসার ইনচার্জ তারেকুর রহমান সরকার প্রমুখ।

অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি উপজেলার সরকারি বিশ^বিদ্যালয় কলেজে ছয় কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি ছয়তলা বিশিষ্ট অ্যাকাডেমিক ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এবং উপজেলার তিলনা ইউনিয়নে ভুমিহীনদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নির্মাণাধীন গৃহগুলো পরিদর্শন শেষে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দলীয় সভায় বক্তব্য প্রদান করেন।

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ