দেশের ইতিহাসে কোনো নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়নি

  • 5
    Shares

অনলাইন ডেস্ক: বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ ছয়জনকে বুধবার মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। কিন্তু দেশের ইতিহাসে বহু নারীকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হলেও এখন পর্যন্ত কোনো নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়নি। মাঝেমধ্যে দেখা গেছে, কোনো একটি বিচারিক আদালতে কোনো ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়া হলেও পরবর্তীতে উচ্চ আদালতের রায়ে তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ পরিবর্তিত হয়েছে।

দেশে এই ধরনের বেশকিছু ঘটনা রয়েছে যেখানে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া আসামি উচ্চ আদালতে আপিল করার পর তার সাজা কমেছে বা মওকুফ হয়েছে।

এবিষয়ে সাবেক কারা উপ মহাপরিদর্শক শামসুল হায়দার সিদ্দিকী বলেন, এই ধরনের ক্ষেত্রে চূড়ান্ত বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে সাধারণত দীর্ঘসময় লেগে থাকে। এসব ক্ষেত্রে মৃত্যুদণ্ডের রায় উচ্চতর আদালত থেকে বাতিল না হওয়া পর্যন্ত কনডেমড সেলেই থাকতে হয় বন্দীকে।

তিনি বলেন, যতদিন পর্যন্ত উচ্চ আদালত মৃত্যুদণ্ডের আদেশ বাতিল না করছে, ততদিন পর্যন্ত এ বন্দিকে কনডেমড সেলেই থাকতে হয়। কারাবিধি অনুসরণ করে কনডেমড সেল থেকে গিয়েই আদালতের কার্যক্রমে যোগ দিতে হয় বন্দীকে। আর এরকম অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে বন্দীকে বছরের পর বছর কনডেমড সেলে থাকতে হচ্ছে।

বাংলাদেশে দশ বছরেরও বেশি সময় ধরে কোনো বন্দীর কনডেমড সেলে থাকার নজির আছে। তবে দেশের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত বহু নারীকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হলেও এখন পর্যন্ত কোনো নারীর মৃত্যুদণ্ড আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর হয়নি। সূত্র: বিবিসি

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ