দুলাভাইকে বিয়ে করতে ১৪ মাসের শিশুকে হত্যা করে আশা

  • 48
    Shares
নিহত শিশু আরাফাত। ছবি- সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক:

ঢাকার কেরানীগঞ্জে রাজিব আহমেদের চাচাতো শালি আশা আক্তার সাথে পরকীয়ার জেরে ১৪ মাসের শিশুপুত্র আরাফাতকে অপহরণের নাটক সাজিয়ে হত্যা করে লাশ গুম করে।

গত ২৯ জুলাই এ ঘটনা ঘটেছে। মোবাইল ফোনে অপরিচিত নাম্বার থেকে রাজিবের কাছে ফোন করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এ ঘটনায় রাজিব কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম জানায় অপহরণ মামলার তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে রাজিব তার চাচাতো শালি আশা আক্তারের কাছে আরাফাতকে তার মা মারা যাওয়ার পর পালক দেয়। এ সময় আশা রাজিবের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পরে।

গত ৫ মাস ধরে আশা ও রাজিবের মধ্যে সম্পর্ক চলছিলো। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানায় আশা আরাফাতকে তার পথের কাটা মনে করতো।

আর সে কারণে আরাফাতকে অপহরণের নাটক সাজিয়ে থানার মান্দাইল খালের ঘাট এলাকায় পলাশ ভিলার তৃতীয় তলার আশার মায়ের বাসায় নিয়ে ২৯ জুলাই রাতে ১৪ মাসের শিশু আরাফাতকে হত্যা করে।

গত শনিবার রাজিবের দায়ের করা অপহরণ মামলায় পুলিশ আশাকে গ্রেফতার করে থানা এনে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায় আরাফাতকে হত্যার কথা স্বীকার করে।

রবিবার (২ আগস্ট) আশাকে আদালতে পাঠানো হলে আশা ১৬৪ ধারায় আদালতের কাছে আরাফাতের হত্যায় জড়িত বলে নিজের দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়।

আশা বলেন, রাজিবকে বিয়ে করতে তার ছেলে আরাফাত ছিলো পথের কাটা। তাই আশা আরাফাতকে অপহরণের নাটক সাজিয়ে আরাফাতকে হত্যা করে। -ইত্তেফাক

সোনালী সংবাদ/এইচ.এ

শর্টলিংকঃ