দরিদ্রদের সহায়তায় সোয়া ১১ কোটি টাকা ও ৪০ হাজার টন চাল বরাদ্দ

সোনালী ডেস্ক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সরকার ঘোষিত ছুটির মধ্যে ৬৪ জেলার দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সহায়তার জন্য দুর্যোগ ব্যবস’াপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে এ পর্যন্ত ১১ কোটি ২৪ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা ও ৩৯ হাজার ৬৬৭ টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। গত সোমবার দুর্যোগ ব্যবস’াপনা মন্ত্রণালয় থেকে দুর্যোগ ব্যবস’াপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের কাছে পাঠানো বরাদ্দপত্র থেকে এই তথ্য জানা গেছে।
এতে বলা হয়, সম্ভাব্য করোনাভাইরাস পরিসি’তি মোকাবিলায় তাৎক্ষণিকভাবে মানবিক সহায়তা হিসেবে বিতরণের জন্য ৬৪ জেলায় এই বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ২৮ মার্চ পর্যন্ত ত্রাণের চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৩১ হাজার ২১৭ টন। গতকাল মঙ্গলবার চালের বিশেষ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৮ হাজার ৪৫০ টন। অপরদিকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত নগদ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৮ কোটি ৮৯ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা, ৩০ মার্চ বিশেষ বরাদ্দ দেয়া হয় ২ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। সংশিৱষ্ট সব জেলা প্রশাসকরা দুর্যোগ পরিসি’তিতে মানবিক সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন নির্দেশিকা অনুসরণ করে এ বরাদ্দ বিতরণ করবেন এবং নিরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় হিসাব সংরক্ষণ করবেন বলে আদেশে উলেৱখ করা হয়। এতে আরও বলা হয়, পৌর এলাকায় বেশি সংখ্যক কর্মজীবী মানুষ বসবাস করে বিধায় জেলা প্রশাসকরা বরাদ্দের ক্ষেত্রে পৌর এলাকাকে গুর্বত্ব দেবেন। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ২৬ মার্চ থেকে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করেছে। এ সময়ে প্রয়োজন ছাড়া কাউকে বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে সরকার। এতে শ্রমজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। শ্রমজীবী মানুষের তালিকা করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাদের খাদ্য সহায়তা দিতে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশনা দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস’াপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। রোববার দুর্যোগ ব্যবস’াপনা মন্ত্রণালয় থেকে এই নির্দেশনা দিয়ে ডিসিদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। আর আগে এ বিষয়ে ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শর্টলিংকঃ