তৃতীয় লিঙ্গের এক ব্যক্তিকে জাতীয় পরিচয়পত্র প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার: ‘ভোটার হয়ে ভোট দেব, দেশ গড়ায় অংশ নেব’ ¯েøাগানে রাজশাহীতে জাতীয় ভোটার দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা হয়েছে। সভা শেষে রাজশাহীতে এই প্রথম তৃতীয় লিঙ্গের এক ব্যক্তিকে জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া হয়েছে।
গতকাল সোমবার সকালে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল প্রাঙ্গণে বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সুজায়েত ইসলাম। পরে সেখান থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি নগরীর সিঅ্যান্ডবি মোড়ে শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান জেলা পরিষদ মিলনায়তনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এরপর সেখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার ড. আবদুল মান্নান।
প্রধান আলোচক ছিলেন আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম। তিনি পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনার মাধ্যমে জাতীয় ভোটার দিবসের গুরুত্ব তুলে ধরেন। এতে নির্বাচন কমিশনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য, ভোটার হওয়ার যোগ্যতা, জাতীয় পরিচয়পত্রের গুরুত্ব, ভুল সংশোধনের উপায় ইত্যাদি বিষয় গুরুত্ব পায়। তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে সুদৃঢ় করতে নির্ভুল ভোটার তালিকা একান্ত প্রয়োজন। এক্ষেত্রে সকলের সহযোগিতা কাম্য। পূর্বে ভোটার হওয়ার জন্য ৪৬ ধরনের তথ্য দিতে হতো। এখন এতো বেশি তথ্যের প্রয়োজন হয় না। স্মার্ট কার্ডে ২৬ ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আছে। এই কার্ডের মাধ্যমে ভিসা ছাড়াই বিদেশ ভ্রমণ করা যাবে। জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধনের জন্য নির্বাচন অফিসে গিয়ে ফরম পূরণের পাশাপাশি অনলাইনেও ফরম পূরণ করে আবেদন করা যায়। এই কার্যক্রমগুলো বাংলাদেশ যে ডিজিটাল হচ্ছে তার পরিচয় বহন করে।
সভায় স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক পারফেজ রায়হান, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম, সুমন দেব ও বাংলাদেশ আনসার বাহিনীর রাজশাহী রেঞ্জের সহকারী পরিচালক এমরান হক বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার সাইফুল ইসলাম।
আলোচনা শেষে ১০ জনের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেয়া হয়। এদের মধ্যে তৃতীয় লিঙ্গের এক ব্যক্তিকেও জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া হয়।

শর্টলিংকঃ