তাহেরপুরে আ’লীগের সম্মেলনে সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত ১০

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে সাংবাদিকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ভাঙচুর করা হয়েছে সময় টিভির ক্যামেরা। আহতদের মধ্যে বিষুপাড়া মহল্লার ইষানের (২২) অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে এবং আহত মিলনসহ (২৫) অন্যান্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান, গতকাল শনিবার বেলা ১২ টার দিকে তাহেরপুর পৌর এলাকার সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক ওরফে আর্ট বাবু তার কয়েক জন সহযোগী নিয়ে তাহেরপুর ডিগ্রি কলেজ চত্বরে অবস্থান করেন। এ সময় তাহেরপুর পৌরমেয়র বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের সমর্থক ২০/২৫ জনের একটি দল আর্ট বাবুর সহযোগীদের উপর হামলা চালায়। পরে মারপিট করে সেখান থেকে তাদের বের করে দেয়া হয়। এতে আর্ট বাবুর আট থেকে দশ জন কর্মী আহত হন। হামলার সময় ছবি তুলতে গেলে সময় টিভির চিত্র সাংবাদিক হাবিবুর রহমান পাপ্পুর সাথে থাকা ক্যামেরা ভাঙচুর ও তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ পাহারায় আর্ট বাবু ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সংবাদ কর্মীরা।
এদিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বেলা সাড়ে বারোটার দিকে তাহেরপুর পৌরসভার শেখ রাসেল অডিটোরিয়ামের সম্মেলন স্থলে অনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলনের কার্যক্রম শুরু হয়। সম্মেলনে পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ আবু বাক্কার মৃধা মুনছুর রহমানকে সভাপতি, প্রভাষক কাউসার রহমানকে সহ সভাপতি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক পৌরমেয়র আবুল কালাম আজাদকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। প্রভাষক মাহাবুর রহমান বিপ্লবকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মাহাবুবুল হক শাহীকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৬৯ সদস্য বিশিষ্ট তাহেরপুর পৌর আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণা করেন প্রধান অতিথি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা। প্রধান পৃষ্ঠাপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা। উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য আলহাজ ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আয়েন উদ্দিন এমপি, বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান সাবেক ছাত্রনেতা লায়েব উদ্দিন লাভলু, বাগমারা উপজেলা চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকারসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আরইউজের উদ্বেগ
এদিকে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সময় টিভির ক্যামেরপারসন পাপ্পুর ওপর হামলা এবং ক্যামেরা ভাঙচুরের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের (আরইউজে) সভাপতি কাজী শাহেদ ও সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক। এক বিবৃতিতে আরইউজে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হামলার ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।
সাংবাদিক সংস্থার নিন্দা
বাগমারা উপজেলার তাহেরপুরে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা, রাজশাহী জেলা শাখার নব নির্বাচিত কমিটির যুগ্ম সম্পাদক (২) এবং সময় টিভির রাজশাহী ব্যুরো প্রধান হাবিবুর রহমান পাপ্পুর ওপর হামলার ঘটনায় সংগঠনের পক্ষ থেকে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
এক বিবৃতিতে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা রাজশাহী জেলা শাখার নব নির্বাচিত সভাপতি রফিক আলম, সহ-সভাপতি আবু সালে মোহাম্মদ ফাত্তাহ ও আমীর ফয়সাল স¤্রাট, সাধারণ সম্পাদক এস.এইচ.এম. তরিকুল, যুগ্ম সম্পাদক শাহরিয়ার অন্তু, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন হুমায়ুন ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিব আহমেদসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ পাপ্পুর ওপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

শর্টলিংকঃ