জ্বর-শ্বাসকষ্টে রাজশাহীর সাবেক ফুটবলার কিরুর মৃত্যু


স্টাফ রিপোর্টার: জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে রাজশাহী জেলা ফুটবল দলের সাবেক খেলোয়াড় ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার অবসরপ্রাপ্ত কার্যসহকারী আবুল বাসার কিরু মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে তিনি মারা যান।

মৃত্যুকালে আবুল বাসার কিরুর বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখেছেন। কিরু দীর্ঘদিন ঢাকার ইস্টান্ড ক্লাব, ওয়ান্ডার্স ক্লাব, রাজশাহী বিশ্বদ্যিালয়সহ বিভিন্ন ক্লাবের পক্ষে ফুটবল খেলেছেন। কয়েক মাস ধরে তিনি হৃদরোগে ভুগছিলেন। তবে গত কয়েকদিন ধরে তিনি জ্বরে ভুগছিলেন। তবে বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হঠাৎ শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। কিছুক্ষণ পর তিনি মারা যান।

কিরুর ভাই হেলাল উদ্দিন জানান, করোনার উপসর্গ থাকায় মৃতদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তিনি করোনা আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পরই বলা যাবে। তবে সাধারণ নিয়মেই তার ভাইয়ের মরদেহ দাফন করা হয়েছে। শুক্রবার বাদ জুমা নগরীর হেতেমখাঁ মসজিদে জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর হেতেমখাঁ কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়।

সাবেক ফুটবলার কিরুর মৃত্যুতে সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা শোক প্রকাশ করেছেন। তারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন। পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

রাজশাহী বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে সহ-সভাপতি মাহফুজুল আলম লোটন, ডাবলু সরকার, মো. লিয়াকত আলী, ইমতিয়াজ আহম্মেদ শামসুল হুদা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদুন নবী অনু, যুগ্ম-সম্পাদক খায়রুল আলম ফরহাদ, রেজাউল ইসলাম বাবুল, কোষাধ্যক্ষ সিরাজুর রহমান খান, সোনালী অতীত ক্লাবের সভাপতি আশরাফ হোসেন নবাব ও সাধারণ সম্পাদক আলী আফতাব তপন শোক প্রকাশ করেছেন। তারাও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

সোনালী/আরআর

শর্টলিংকঃ