জনগণের স্বার্থ উপেক্ষা করে জনপ্রতিনিধিত্ব হয় না: বাদশা

  • 1
    Share


স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা বলেছেন, জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়ে জনগণের স্বার্থকেই উপেক্ষা করলে তাকে জনপ্রতিনিধিত্ব করা বলে না। জনপ্রতিনিধি হতে হলে তাকে জনগণের স্বার্থকেই প্রাধান্য দিতে হয়। আর তা না হলে শুধু পদ ধরে রাখা হয়, জনপ্রতিনিধিত্ব হয় না।

শুক্রবার বিকালে রাজশাহীর পবা উপজেলার হড়গ্রাম ইউনিয়ন ওয়ার্কার্স পার্র্টির এক কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। হড়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) কার্যালয় চত্বরে এ সভার আয়োজন করা হয়। কর্মীসভায় হড়গ্রাম ইউপি নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টির চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা আরও বলেন, ‘হড়গ্রাম ইউনিয়নটি আমার নির্বাচনি এলাকার সঙ্গে লেগে আছে। এখানে যদি আমাদের পার্টির প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারেন তাহলে তার মাধ্যমে এলাকাটিকে এগিয়ে নিতে আমি সর্বাত্মক কাজ করব। কারণ, এই এলাকার সঙ্গে আমার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। আখ সেন্টার নিয়ে আগে এখানে অনেক আন্দোলন-সংগ্রাম করেছি। এলাকার চাষিদের স্বার্থের জন্য কাজ করেছি।’

বাদশা বলেন, ‘অনেকে নির্বাচিত হওয়ার পর জনগণের স্বার্থ উপেক্ষা করেন। গুটিকয়েক মানুষের স্বার্থে তারা কাজ করেন। কিন্তু ওয়ার্কার্স পার্টির জনপ্রতিনিধিরা গরীব খেটে খাওয়া মানুষের জন্য কাজ করেন। আমি হিসেব করে দেখেছি, আমার রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ৫২ বছর ধরে। এখনও আত্মতৃপ্তি পাইনি। যেদিন সাধারণ মানুষ আত্মতৃপ্তি পাবে সেদিন আমিও আত্মতৃপ্তি পাব।’

তিনি বলেন, ‘এখন চিনিকল-পাটকল বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। সরকারকে বলেছি- মিল চালু রাখতে হবে। মিল বন্ধ হয়ে গেলে কৃষক-শ্রমিক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। দেশে চিনির উৎপাদন থেমে যাবে। তখন টাকাওয়ালা ব্যবসায়ীরা বিদেশ থেকে চিনি আমদানি করবে যা আমাদের বেশি দামে কিনতে হবে।’

কর্মীসভায় ওয়ার্কার্স পার্টির হড়গ্রাম ইউনিয়নের সভাপতি ফজলুর রহমানকে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষণা করা হয়। নির্বাচনের সময় দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে ফজলুর রহমানকে নির্বাচিত করার আহ্বান জানান পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা ফজলে হোসেন বাদশা।

কর্মীসভায় সভাপতিত্ব করেন ফজলুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ওয়ার্কার্স পার্টির রাজশাহী মহানগরের সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু। এছাড়াও বক্তব্য দেন- পার্টির নগর সম্পাদকমণ্ডলির সদস্য আবদুল মতিন, সদস্য আবদুল খালেক বকুল, নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার সভাপতি শামীম ইমতিয়াজ, দুই নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কুদ্দুস টেবলু প্রমুখ। হড়গ্রাম ইউনিয়ন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন কর্মীসভা পরিচালনা করেন।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ