ছাত্র সংগঠনগুলোই রাকসু নির্বাচন চায় না: উপাচার্য

বিশ^বিদ্যালয় প্রতিবেদক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান বলেছেন, অনেকে বলেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কি এমন ঘটেছে যে, রাকসু নির্বাচন ও সিনেট অধিবেশন নেই। আমরা প্রশ্ন কয়টা বিশ্ববিদ্যালয়ের এগুলো রয়েছে? কোনোটিতেই নেই। রাকসু নির্বাচন করবেন? কারা নেতৃত্ব দিবে? সেরকম নেতৃত্ব আছে কি? আমি বহুবার বলেছি, আগের বারও বলেছি রাকসু নির্বাচন দিতে চাই। কিন্তু একটি সংগঠনও রাজি হয়নি।
গতকল শনিবার দুপুরে শহিদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র (টিএসসিসি) মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের সংগঠন রাবি ফ্রেন্ডস অ্যাসোসিয়েশনের (রুফা) আয়োজনে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন
অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান আরও বলেন, ‘রাকসু নির্বাচন নিয়ে কত লোকের বিবৃতি- তারা রাকসু নির্বাচন চায়। ক্যাম্পাসে নানা মতাদর্শের ১৫-২০টি সংগঠন আছে। ইলেকশন হয়ে গেলে একজন নেতা হবে, তখন বাড়বে সংঘাত। এখন ইনডিভিজ্যুয়াল সংগঠনে যারা নেতৃত্ব দিচ্ছে তারা বাহাদুরি দেখায়। ফলে তারা রাকসু নির্বাচন চায় না। একসময়ের নেতৃত্ব আর এখনকার নেতৃত্বের মধ্যে গুণগত মানের অনেক পার্থক্য আছে। নেতা হওয়া কি সহজ জিনিস?
বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক রেজাউর রহিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন-বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ, রাবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া প্রমুখ।

শর্টলিংকঃ