কোয়ারেন্টাইন থাকা খেত মজুরদের খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দিতে হবে /কৃষক নেতৃবৃন্দ

সোনালী ডেস্ক: গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের সভাপতি মাহমুদুল হাসান মানিকের সভাপতিত্বে জাতীয় কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সংক্ষিপ্ত জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় দেশের কৃষকদের সমস্যা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। সারাদেশে সংগঠন গড়ে তোলার জন্য তাগিদ দেওয়া হয়। নেতৃবৃন্দ হাওড়-বাওড় ও চরাঞ্চলে শ্রমজীবী মানুষকে সংগঠিত করার ওপর জোর দেন। এছাড়া বাণিজ্যিক ও কৃষি ভিত্তিক চাষাবাদকারীদের (পশু পালন, মৎস্য চাষ, আখ চাষ, তামাক চাষ, কলা চাষ, বাদাম চাষ, আম-লিচু চাষ, লবণ চাষ, চিংড়ি চাষ) সমস্যা ভিত্তিক আন্দোলন ও সংগঠন গড়ে তোলার ওপর জোর দেওয়া হয়।
সভায় বিশ^ব্যাপী ছড়িয়ে পড়া ও মহামারীতে রূপ নেওয়া করোনা ভাইরাস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। করোনা ভাইরাস ইতিমধ্যে বাংলাদেশেও বিস্তার লাভ করছে। আতংকগ্রস্ত ও উৎকন্ঠিত মানুষকে বাঁচাতে সরকার ইতিমধ্যে বেশকিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হোটেল, পর্যটন এলাকায় মিটিং, মিছিল, বিয়ে, ওয়াজ মাহফিল ও লোক সমাগম হয় এমন জায়গা বন্ধ ও নিষিদ্ধ করেছে। দিনমজুর, খেতমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষ নিরূপায় ও কর্মহীন হয়ে পড়েছে। সভায় দিনমজুর ও খেতমুজরদের প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টাইন থাকা অবস্থায় খাদ্য ও আর্থিক সহয়তা দেওয়ার জন্য সরকারের ওপর জোর দাবি জানান হয়। ইতিমধ্যে পৃথিবীব্যাপী শ্রমজীবী মানুষদের জন্য বিভিন্নদেশ কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায় খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা প্রদান শুরু করেছে, যা বাংলাদেশের সরকারকেও উদ্যোগ নিতে হবে।
সভায় চুয়াডাঙ্গা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য ও জাতীয় কৃষক সমিতির জেলা সহ-সভাপতি কমরেড ইউনুস আলী শান্তির মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয় ও মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়।
সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম গোলাপ, গবেষণা সম্পাদক নুর আহমদ বকুল, সহ-সাধারণ সম্পাদক হবিবর রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক দীপংকর সাহা দিপু, প্রচার সম্পাদক মোস্তফা আলমগীর রতন, দপ্তর সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ খান, ক্রীড়া সম্পাদক গোলাম নওজ পাওয়ার চৌধুরী প্রমুখ।

শর্টলিংকঃ