কোয়ারেন্টাইনে ব্যবহৃত হবে ইজতেমা মাঠ

সোনালী ডেস্ক: করোনাভাইরাসের কারণে কোয়ারেন্টাইন ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসার কাজে ব্যবহারে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিতে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার মাঠ সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এরইমধ্যে তারা মাঠটির নিয়ন্ত্রণ নিতে শুরু করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের প্রস্তুতি বিষয় জানাতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
মন্ত্রী বলেন, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালকে এই রোগের চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। এ ছাড়া আরও অনেক হাসপাতাল চিহ্নিত করা হয়েছে। যেখানে প্রায় দুই হাজার শয্যার ব্যবস্থা করা যাবে। এরপরও আরও বড় জায়গার প্রয়োজন হলে সেই ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। সেজন্যই বিশ্ব ইজতেমার জায়গাটি সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। জাহিদ মালেক আরও বলেন, কোনো এলাকায় যদি পরিস্থিতির অবনতি ঘটে তাহলে প্রয়োজনে ওই এলাকাকে লকডাউন করা হবে। মন্ত্রী জানান, এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে যে ১৭ জন করোনায় আক্রান্ত বলে চিহ্নিত হয়েছেন, তাদের বেশির ভাগের বাড়ি মাদারীপুর ও ফরিদপুর জেলায়। এ তথ্য জানাতে গিয়ে মন্ত্রী মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কথা আলাদাভাবে উল্লেখ করেন। মন্ত্রী জানান, করোনা রোধের প্রস্তুতি হিসেবে স্বাস্থ্য বিভাগের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে। এ ছাড়া সারা দেশে পাঁচ হাজারের বেশি মানুষকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে যেসব পরামর্শ দেয়া হচ্ছে সেগুলো মেনে চললে সবাই ভালো থাকতে পারবো। দুই মাস ধরে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। এ কারণে আজও দেশ ভালো আছে। প্রধানমন্ত্রী আজও একনেকের সভায় বলেছেন, আমরা তো এখনও ভালো আছি। আমরা অনেক আগে থেকে প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ সব মন্ত্রণালয় একযোগে কাজ করছে। সব মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ গ্রহণ করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী পরামর্শ দিচ্ছেন। ওঁর (প্রধানমন্ত্রী) অফিস পরামর্শ দিচ্ছে। কেবিনেট থেকে পরামর্শ পাচ্ছি। সব জেলা থেকে হালনাগাদ তথ্য পাচ্ছি। কোন জেলায় কত রোগী, কতজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হলো, কতজনকে আইসোলেশনে পাঠানো হলো, এ-সংক্রান্ত সব তথ্য প্রতিদিনই পাচ্ছি। তিনি জানান, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন স্বাস্থ্য বিভাগের সব প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, উন্নত অনেক দেশ করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। ইতালিতে ৩০ হাজার লোক আক্রান্ত হয়েছে, মারা গেছে তিন হাজারেরও বেশি। যুক্তরাজ্যে হচ্ছে ফ্রান্সে হচ্ছে তারা কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। আমরা গণমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে দেশবাসীর কাছে সহযোগিতা চাই। সবাই মিলে যদি কাজ করি তাহলে আমরা এটাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারব। গণমাধ্যমকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমরা চাই আপনারা পরামর্শ দেন। কিন্তু আমরা এটাও চাই না, মিডিয়ায় যদি নেগেটিভ নিউজ আমরা দেই, যে নিউজ দেখে লোকজন আতঙ্কিত হয় সে নিউজ থেকে বিরত থাকার আহŸান জানান তিনি।

শর্টলিংকঃ