কোরিয়ান মেয়েদের রূপের রহস্য কি?

  • 1
    Share

অনলাইন ডেস্ক: সৌন্দর্যের ক্ষেত্রে কোরিয়ান নারীদের খ্যাতি বিশ্বজোড়া। আমাদের দেশেও অনেকেই তাদের নিখুঁত ত্বক দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেন, কেউ বা তাদের তারুণ্যদীপ্ত ত্বক দেখে মুগ্ধ হন। একটা জিনিস অনেকেরই অজানা আর তা হলো কোরিয়ান নারীরা প্রচুর পরিমাণে স্কিনকেয়ার প্রডাক্ট ব্যবহার করেন এবং বয়স বিশের কোঠায় যাবার পর পরই তারা এন্টি-এজিং ক্রিম এবং সিরাম ব্যবহার করতে থাকেন।

ফলাফল? তরুণ এবং নিখুঁত ত্বক। আপনি যদি তাদের মতোই ঝকঝকে ত্বক চান অথচ এতো সময় বা অর্থ খরচ করার উপায় নেই তাহলে দেখে নিতে পারেন কোরিয়ান মেয়েদের সৌন্দর্যচর্চার এই ভিত্তিগুলো।

একটি ক্লিনযার ব্যবহার করে মেকআপ মুছে ফেলা হয় এবং এর পর পরই আরেকটি ক্লিনজার দিয়ে মুখের তেল-ময়লা ধুয়ে ফেলা হয়। এমন পরিষ্কার মুখে অ্যান্টি-এজিং প্রোডাক্ট ব্যবহার করা হলে ত্বক তা ভালোভাবে শুষে নিতে পারে। ফলে উপকারটা বেশি পাওয়া যায়।

তারা সাধারণ ক্লিনজারের পাশাপাশি ফোম ক্লিনযার এবং অয়েল বেসড ক্লিনজারের প্রতি বেশ গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। ক্লিনজিং এর পাশাপাশি এক্সফলিয়েট করাটাও খুব জরুরী।

যে কোনো কোরিয়ান সৌন্দর্যচর্চার কেন্দ্রে থাকে হাইড্রেশন, অর্থাত্‍ ত্বককে ময়েশ্চারাইজড রাখা। যেসব প্রোডাক্ট তারা ব্যবহার করেন সেগুলোর সবই হয়ে থাকে ময়েশ্চারাইজিং। এমনকি টোনারগুলোও ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজিং, কারণ এগুলো ত্বকের প্রাকৃতিক তেল মুছে ফেলে না।

তারা সাধারণত দুই স্তরে দুই ধরণের ময়েশ্চারাইজার দিয়ে থাকে প্রতি রাত্রেই। এ কারণে কোরিয়ানদের মতো ত্বক পেতে আপনার ময়েশ্চারাইজিং এর প্রতি বেশ গুরুত্ব দিতে হবে।

সোনালী/জেআর

শর্টলিংকঃ