- সোনালী সংবাদ - https://sonalisangbad.com -

কৃষি জমি রক্ষার সিদ্ধান্ত নিশ্চিত করা জরুরি

  • 5
    Shares

উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে জমির ব্যবহার বাড়তে থাকায় দেশে কৃষি জমির পরিমাণ কমে যাচ্ছে। বিষয়টি উদ্বেগজনক হয়ে ওঠায় কৃষি জমি রক্ষার্থে জমির ধরন নির্ধারণ ও সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে সরকার ভূমি ব্যবস্থাপনা ডিজিটাল করার উদ্যোগ নিয়েছে। এর ফলে কৃষি জমি রক্ষার পাশাপাশি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে শৃঙ্খলা ফিরে আসবে, জোর দিয়ে বলা যায়।

শিল্প-কারখানা ছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মাণ, রাস্তাঘাট, বসতবাড়ির জন্য প্রতিদিনই কৃষি জমির পরিমাণ কমে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে জাতীয় ভিত্তিক পরিকল্পনা না থাকায় অকৃষিখাতে কৃষি জমির ব্যবহার কমানো সম্ভব হয় না। সম্ভবত এ বিষয়টি চিন্তা করেই সারাদেশে ডিজিটাল ভূমি জোনিং এবং মৌজা ও প্লটভিত্তিক ডাটাবেজ প্রণয়নের প্রকল্প গৃহীত হয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায়। এর ফলে ভূমির প্রকৃতি অনুযায়ী বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করে মাঠ পর্যায়ে সুষ্ঠু ভূমি ব্যবস্থাপনা ও ভূমি সম্পদ সংরক্ষণ করার সুযোগ সৃষ্টি হবে, আশা করা যায়। পরিকল্পিত শিল্পায়নের জন্যও এর প্রয়োজন রয়েছে।

দ্রুত শিল্পায়নের স্বার্থে সরকারি ও বেসরকারি খাতে দেশের বিভিন্ন স্থানে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে এই সরকার। যেখানে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সুযোগ-সুবিধাও নিশ্চিত করা হবে। একইভাবে গুণাগুণ অনুযায়ী ভূমিকে প্লটওয়ারি কৃষি, আবাসন, বনায়ন, জলমহাল, বাণিজ্যিক ও শিল্প উন্নয়ন, পর্যটন ইত্যাদি শ্রেণিতে বিভক্ত করে ব্যবহার নিশ্চিত করা হলে বিদ্যমান ভূমি সংক্রান্ত জটিলতা যেমন কমে আসবে, তেমনি কৃষি জমি রক্ষা করারও সম্ভব হবে।

এর ফলে জমি নিয়ে বিরোধ, মারামারি, মামলার সংখ্যাও কমে আসবে। এখন বেশিরভাগ মামলাই হয় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে। তাই ভূমি ব্যবহারে শৃঙ্খলা নিশ্চিত হলে সামাজিক বিশৃঙ্খলাও কমে আসবে, নিশ্চিত ভাবেই বলা যায়।

তাই ৩৩৭ কোটি ৬০ লাখ টাকার জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্পের সুষ্ঠু বাস্তবায়ন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। দেশের খাদ্য নিরাপত্তার স্বার্থেও কৃষি জমি রক্ষার সিদ্ধান্তের দ্রুত বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা জরুরি।

সোনালী/এমই