কলেজছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে মামলা


সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জে কলেজ ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে সদর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন ধর্ষিতা।

ধর্ষক সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি দৌলতপুর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে নাজমুল ইসলাম পলাতক রয়েছে। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ইউপি সদস্য প্রভাবশালী আব্দুল মান্নান দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শিমলা ডিগ্রি কলেজের এইচএসসির এক ছাত্রীকে দৌলতপুর গ্রামের ছাত্রদল নেতা নাজমুল ইসলাম বিভিন্ন সময়ে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসতো। নাজমুলের প্রস্তাবে রাজী না হলে নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখাতে থাকে।

পরবর্তিতে প্রেমের প্রস্তাবের পাশাপাশি বিয়ের প্রস্তাব দেয়। অবশেষে বিয়ের বিষয়ে কথা বলার জন্য ধর্ষকের মামা খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও স্থানীয় বিএনপি নেতা মো. আব্দুল মান্নানের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। মেম্বারের বাড়িতে কেউ না থাকায় কথা বলার এক পর্যায়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

এ বিষয়ে ধর্ষকের মামা ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান ও তার আত্মীয়স্বজনদের নিকট বিচার প্রার্থী হলে তারা বিচার না দিয়ে উল্টো ধর্ষিতা ও তার পরিবারকে নানাভাবে ভয়ভীতিসহ হত্যার হুমকি দিতে থাকেন। এ ঘটনায় ন্যায় বিচারের আশায় সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রী।

এ ব্যাপারে সদর থানার সাব ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) অপু কুমার জানান, মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

সোনালী/এমই

শর্টলিংকঃ