করোনা সঙ্কটেও সরকারের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে /সেতুমন্ত্রী

সোনালী ডেস্ক: নভেল করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংকট যতদিন থাকবে সরকারের গৃহীত স্বল্পমেয়াদি- দীর্ঘমেয়াদি কার্যক্রম সারাদেশে ততদিন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সরকারের পাশাপাশি ধনী ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসারও আহŸান জানান তিনি।
গতকাল রোববার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনা ভাইরাসে সারা বিশ্ব এক মারাত্মক সংকটের মুখে। এতে থমকে গেছে সব ধরনের স্বাভাবিক কার্যক্রম। কিন্তু মানব সভ্যতার অগ্রযাত্রা অবশ্যম্ভাবী। ইতিহাস এটাই সাক্ষ্য দেয়। এ মানবিক বিপর্যয়ের মুখে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আওয়ামী লীগের সচেতনতামূলক ও সামাজিক কর্মসূচি সারাদেশে চলমান রয়েছে। বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সারাদেশে সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ ও কর্মহীন খেটে খাওয়া অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। যতদিন এ সংকট থাকবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ততদিন জনগণের পাশে থাকবে এবং সরকারের গৃহীত কার্যক্রম সারাদেশে অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ তথা বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে সারাদেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ যারা জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছেন তাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আওয়ামী লীগ এদেশের জনগণের সুখে-দুঃখে আবেগকে ধারণ করেই রাজনীতি করে। বৈশ্বিক এ সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সার্বক্ষণিকভাবে সব পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছেন। গ্রহণ করছেন স্বল্পমেয়াদী- দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা ও কর্মসূচি। যতদিন এ সংকট থাকবে শেখ হাসিনার সরকার ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ততদিন জনগণের পাশে থাকবে। এবং সরকারের গৃহীত কার্যক্রম সারাদেশে অব্যাহত থাকবে।
মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সমাজের ধনী ও বিত্তবানদের আহŸান জানাই মানবিক বিপর্যয়ের এদিনে আপনারা যার যার অবস্থান থেকে জনগণের পাশে দাঁড়ান। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। অতীত ইতিহাস থেকে লক্ষ্য করা যায় এ দেশের জনগণ সবসময় ধৈর্য ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সব ধরনের দুর্যোগ মোকাবিলা করেছে। কোনো দুর্যোগের কাছেই তারা পরাজিত হয়নি। আপনারা কোনো প্রকার গুজবে কান দেবেন না। মারাত্মক করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে সর্তক থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। ধৈর্য ও দায়িত্বশীলতার সঙ্গে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমÐলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শাহাবুদ্দিন ফরাজী।

শর্টলিংকঃ